kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

দিল্লিতে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে অন্তঃসত্ত্বা তরুণীকে গণপিটুনি, গ্রেপ্তার ৩

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২০:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দিল্লিতে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে অন্তঃসত্ত্বা তরুণীকে গণপিটুনি, গ্রেপ্তার ৩

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে ছেলেধরা সন্দেহে এক অন্তঃসত্ত্বা তরুণীকে মারধরের শিকার হয়েছন। পরে তাকে উদ্ধার করে দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে গত বছরও ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে এক জনকে হত্যার ঘটনা ঘটেছিল। 

ভারতের দিল্লিসহ বেশ কিছু প্রদেশে ছেলেধরা গুজবে এমন গণপিটুনির ঘটনা হরহামেশা ঘটছে। যার সর্বশেষ উদাহরণ এ ঘটনা। ছেলেধরা সন্দেহে তরুণীকে মারধরের ভিডিও এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। তাতে দেখা গিয়েছে এক তরুণীকে ঘিরে ধরে রয়েছে পাঁচ থেকে ১০ জন্য যুবক। ভিরের মধ্যে থেকে অনেকেই চিৎকার করে বলছে শিশু চুরি করার চেষ্টা করছিল। এ সময় তিন যুবক তার মাথায় আঘাত করতে থাকে। সেই ভিড়ের মধ্যেই অনেকে অভিযোগ করছেন ছোট ছোট বাচ্চাদের টাকা দিয়ে লোভ দেখায় তারপর জানলা দিয়ে শিশুদের চুরি করে পালিয়ে যায়।

তার পরিবারের সদস্যরা জানান, গত ১৮ আগস্ট শ্বশুরবাড়ি বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন ওই নারী। এরপরে কোনোভাবে দিল্লির হর্ষবিহারে পৌঁছে যান তিনি। আশ্রয় নেন ফুটপাথে। স্থানীয় মানুষজন তাকে খাবারও দিতেন। কিন্তু গত ২৭ আগস্ট গুজব রটে, ওই নারী আসলে ছেলেধরা। এরপরই তার ওপর চড়াও হয় উন্মত্ত জনতা। আহত অবস্থায় ওই নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এই ঘটনায় অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিসিপি অতুল কুমার ঠাকুর। একই সঙ্গে ছেলেধরা গুজবে কান না দেওয়ার জন্য শহরবাসীর কাছে আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা