kalerkantho

বান্ধবীর বাড়ি থেকে মন্দিরের প্রধান পুরোহিতের লাশ উদ্ধার, মৃত্যু ঘিরে রহস্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ আগস্ট, ২০১৯ ১২:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বান্ধবীর বাড়ি থেকে মন্দিরের প্রধান পুরোহিতের লাশ উদ্ধার, মৃত্যু ঘিরে রহস্য

সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য (ডানে) ও তার বান্ধবী

ভারতে পশ্চিমবঙ্গে সিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দিরের প্রধান পুরোহিতের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বান্ধবী'র বাড়ি থেকে তাঁর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। 

জানা গেছে, নিহত ব্যক্তির নাম সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য (৪৭)। বেহালা সিদ্ধেশ্বরী কালীবাড়ির প্রধান পুরোহিত ছিলেন। স্ত্রী দুই পুত্রসন্তান রয়েছে তাঁর।কিন্তু তিনি মাঝেমধ্যেই রাত কাটাতেন অন্য এক নারীর বাড়িতে। সেই নারীরও দুই ছেলে এক মেয়ে। ওই নারীর দাবি অনুযায়ী, তাঁর ছোট ছেলে ওই ব্যক্তিরই ঔরসজাত। আর সেই ব্যক্তিরই রহস্যজনক মৃত্যু ঘিরে উত্তেজনা পর্ণশ্রীর রবীন্দ্রনগর এলাকায়।

সিদ্ধার্থ পেশায় পুরোহিত। তাঁর বাড়ি ১৬২/১ ব্রাহ্মসমাজ রোডে। সেখানেই দুই ছেলে ও স্ত্রী গৌতমীকে নিয়ে থাকতেন তিনি। প্রতিবেশী ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পর্ণশ্রীর রবীন্দ্রনগরের বাসিন্দা ঝুমা রায়ের বাড়িতেও প্রায়শই রাত কাটাতেন তিনি। ঝুমারও দুই ছেলে এক মেয়ে। স্বামী বাড়িতে থাকেন না।

সিদ্ধার্থের স্ত্রী গৌতমীর বয়ান অনুযায়ী, রবিবার রাতে ঝুমা সিদ্ধার্থকে ফোন করে বাড়িতে ডাকেন। এরপরই তাঁরা সিদ্ধার্থের মৃত্যুর খবর পান। 

এদিকে, ঝুমার দাবি, সিদ্ধার্থ রাতে বাড়িতে আসার পর ছোট ছেলেকে নিয়ে ঝামেলা হয়। ঝুমার দাবি, তাঁর ছোট ছেলে সিদ্ধার্থের ঔরসজাত। এরপরই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন সিদ্ধার্থ। ঘরে গিয়ে গলায় দড়ির ফাঁস লাগিয়ে দেন। তাঁকে উদ্ধার করে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিত্সকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

সিদ্ধার্থের স্ত্রী গৌতমীর দাবি, সিদ্ধার্থকে খুন করেছেন ঝুমা ও তাঁর ছেলে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। 

সূত্র : ডেইলি হান্ট 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা