kalerkantho

পশ্চিমবঙ্গে নারীকে ন্যাড়া করে মধ্যযুগীয় পৈশাচিকতা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ আগস্ট, ২০১৯ ১৮:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পশ্চিমবঙ্গে নারীকে ন্যাড়া করে মধ্যযুগীয় পৈশাচিকতা!

নির্যাতিতা গৃহবধূর আজমিরা বিবি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিষেক ডায়মন্ড হারবার লোকসভা কেন্দ্রের সংসদ সদস্য। আর তাঁর কেন্দ্রে ঘটে যাচ্ছে চরম লজ্জাজনক ঘটনা। চলছে নারীর উপর মধ্যযুগীয় পৈশাচিকতা। এ ঘটনায় অভিষেকের কোন মতামত এখনো অবধি শোনা যায়নি।

জানা গেছে, দু'দিন আগে ডায়মন্ড হারবারের ঢোলাহাটের পাকুড়তলা এলাকায় পারিবারিক বিবাদের জেরে স্ত্রীকে ন্যাড়া করে শাস্তি দিয়েছে স্বামীসহ বেশ কয়েকজন। নির্যাতিতা গৃহবধূর নাম আজমিরা বিবি। ওই ঘটনায় স্বামী সমসেল হককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

একটি সূত্রে জানিয়েছে, সামসলের এটি দ্বিতীয় বিয়ে। প্রথম পক্ষের স্ত্রী মারা যাবার পর আজমিরাকে বিয়ে করে। তাদের সংসারে ৪ বছরের (দ্বিতীয় পক্ষ) ৪ বছরের একটি সন্তানও রয়েছে।

জানা গেছে, বিয়ের পর থেকেই স্বামী এবং প্রথম পক্ষের ছেলে মিলে আজমিরার ওপর প্রবল শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতো। গ্রামে সালিশি সভায় সমসেল একথাও স্বীকার করে যে সে আর এমন কাজ কখনোই করবে না।

কিন্তু শুধু কথায় তো মানুষের চরিত্র পালটায় না। প্রমাণ করে ফের গত বৃহস্পতিবার বাবা-ছেলে ও আরো কয়েকজন মিলে প্রচণ্ড অত্যাচার শুরু করে আজমিরাকে। লোহার রোড দিয়ে বেধড়ক মেরে বেহুশ করে মাথা ন্যাড়া করে ফেলে। 

স্থানীয়রা আজমিরাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। 

বৃহস্পতিবার রাতেই ঢোলাহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে আজমিরার পরিবার। সে রাতেই সমসেলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

সূত্র : ডেইলি হান্ট 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা