kalerkantho

কাশ্মীরে গণতান্ত্রিক অধিকার হরণই সবচেয়ে বড় 'দেশবিরোধী' কাজ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ আগস্ট, ২০১৯ ১৭:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাশ্মীরে গণতান্ত্রিক অধিকার হরণই সবচেয়ে বড় 'দেশবিরোধী' কাজ

কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াংকা গান্ধি

জম্মু ও কাশ্মীর ইস্যুতে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াংকা গান্ধি ভদ্র আজ রবিবার একটি টুইটবার্তা দিয়েছেন। জম্মু ও কাশ্মীরের ইস্যুকে বিরোধীদল 'রাজনীতিকরণ' করেছে বলে যারা অভিযোগ তুলেছেন তাদের তীব্র সমালোচনা করেছেন তিনি। তিনি মন্তব্য করছেন, কাশ্মীরে গণতান্ত্রিক অধিকার 'বন্ধ' করার অভিযোগের চেয়ে 'রাজনৈতিক' এবং 'দেশবিরোধী' আর কিছুই নেই।

প্রিয়াংকা টুইটার বার্তায় জোর দিয়ে বলেন যে, কংগ্রেস কাশ্মীর ইস্যুতে কথা বলা বন্ধ করবে না। 

৩৭০  বিধান বাতিল করার পর পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে গতকাল রাহুল গান্ধিসহ বিরোধীদলীয় নেতাদের একটি প্রতিনিধিদল কাশ্মীর উপত্যকা সফর করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তাদেরকে  শ্রীনগর বিমানবন্দর ছাড়তে দেয়নি রাজ্য প্রশাসন। রাহুল গান্ধিসহ প্রতিনিধিদলকে রাজধানী দিল্লিতে ফিরে যেতে বাধ্য করে কর্তৃপক্ষ।  

প্রিয়াংকা টুইটারে একটি ভিডিও ট্যাগ করেছেন। ভিডিওতে দেখা গেছে, এক নারী রাহুল গান্ধীকে বলছেন, শ্রীনগর থেকে ফ্লাইটে চড়তে গিয়ে তাঁর পরিবার এবং প্রিয়জনদের সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।

প্রিয়াংকা ভিডিওটির সাথে একটি টুইট করে বলেছেন, এই অবস্থা আর কত দিন অব্যাহত থাকবে? লাখো মানুষের মধ্যে এ মানুষটাও একজন, যিনি 'জাতীয়তাবাদ' এর নামে নিরব থাকছেন এবং ক্ষতবিক্ষত হচ্ছেন। 

প্রিয়াংকা বলেন, যারা এই ইস্যুকে কেন্দ্র করে বিরোধীদলের বিরুদ্ধে 'রাজনীতিকরণের'  অভিযোগ তুলেছেন তাদের উদ্দেশে বলছি, কাশ্মীরে যে গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করা হচ্ছে তার চেয়ে 'রাজনৈতিক' এবং 'দেশবিরোধী' আর কিছুই নেই। 

তিনি বলেন, এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া আমাদের সকলের কর্তব্য। আমরা প্রতিবাদ করা অব্যাহত রাখবো। 

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের শুরুতে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ সুবিধা প্রত্যাহার ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। শুধু তাই নয়, জম্মু ও কাশ্মীরকে কেন্দ্র শাসিত দুটি অঞ্চলে বিভক্ত করা হয়। 

সূত্র : দ্য আউটলুক 

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা