kalerkantho

অফিসের ছাদে যৌন কেলেঙ্কারিতে ট্রাম্প প্রশাসনের সাবেক কর্মকর্তা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ আগস্ট, ২০১৯ ১৫:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অফিসের ছাদে যৌন কেলেঙ্কারিতে ট্রাম্প প্রশাসনের সাবেক কর্মকর্তা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জেনারেল সার্ভিস এডমিনিস্ট্রেশনের (জিএসএ) এক কর্মকর্তার যৌন কেলেঙ্কারির খবর পাওয়া গেছে। বলা হচ্ছে, ওই কর্মকর্তা তার অফিসের ছাদে হোয়াইট হাউসের এক নারী কর্মকর্তার সঙ্গে যৌন মিলনে লিপ্ত হয়েছিলেন। তিনি দায়িত্ব পালন করার সময় এইচআরের নিয়ম লঙ্ঘন করে মদও পান করেন। ঘটনাটি ঘটে ২০১৭ সালের দিকে। কিন্তু স্থানীয় সময় গত বুধবার দেশটির স্থানীয় কিছু পত্রিকা এ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, জেনারেল সার্ভিস এডমিনিস্ট্রেশনের (জিএসএ) কর্মকর্তা ব্রেনান হার্ট হোয়াইট হাউসের এক নারী কর্মকর্তাকে ছাদে নিয়ে গিয়ে যৌন মিলনে লিপ্ত হন। তিনি ২০১৭ সালের ১ জুলাই এফ স্ট্রিটের জিএসএ’র সদর দপ্তরে এ কাজ করেন। হার্ট নিজেও এই ঘটনার কথা শিকার করেছেন। তিনি নেশা দ্রব্য মদও পান করেন।

হার্ট জানান, তাদের যৌন ক্রিয়াকলাপ শুরু হয় অফিসে। ওই অফিস ভবনের ছাদে ওরাল সেক্সেও লিপ্ত হন তারা। প্রতিবেদনে এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, এ ধরনের যৌন মিলন শুধুমাত্র একবার করেছিলেন।

এই ঘটনা প্রকাশ হওয়ার পরই শুরু হয় তদন্ত। পরে জিএসএ’র মহাপরিদর্শক এই বিষয় নিয়ে হার্টের সাক্ষাত্কার নেন গত বছরের মার্চ মাসে। এরপর থেকেই হার্টকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়। গণমাধ্যমে হার্টের নাম প্রকাশ করা হলেও ওই নারী কর্মকর্তার নাম প্রকাশ করা হয়নি। কিন্তু ওই নারীর কর্মকর্তার নামে অভিযোগ দাখিল করা হয়। হোয়াইট হাউসের কৌঁসুলি ডন ম্যাকগাহান এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন।

জিএসএ’র এক মুখপাত্র বিবৃতিতে বলেন, জিএসএ সকল কর্মকর্তাদের সর্বোচ্চ নৈতিক মান ধরে রাখার চেষ্টা করে। এর জন্য আইন ও বিধিমালা নিশ্চিত করার জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করে। ফেডারাল কর্মীদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের পাশাপাশি জিএসএ নিয়োগকারীদের জন্য নৈতিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে। কর্মক্ষেত্রে অ্যালকোহলের ব্যবহার জিএসএ মেনে নেয় না।

সূত্র: রস্টোরি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা