kalerkantho

কলকাতায় নার্সারির ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন, অভিযুক্তরা উঁচু ক্লাসের ছাত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ আগস্ট, ২০১৯ ২২:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলকাতায় নার্সারির ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন, অভিযুক্তরা উঁচু ক্লাসের ছাত্রী

আবারো নাবালিকা ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। এবার কলকাতার নামকরা ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে ঘটনা ঘটেছে। সেখানে নার্সারির ছাত্রীকে যৌন হেনস্থার ঘটনার অভিযোগে এবার কাঠগড়ায় খিদিরপুরের একটি স্কুল। 

অভিযোগ উঠেছে, নার্সারির এক ছাত্রীকে যৌন হেনস্থা করা হয়েছে। ওই ছাত্রী আপাতত ভর্তি রয়েছে ইকবালপুরের একটি নার্সিংহোমে। স্কুল কর্তৃপক্ষকে অভিযোগ জানানো সত্ত্বেও কোনো পদক্ষেপ না ওনয়ার জেরে বুধবার স্কুলের বাইরে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা।

অভিযোগ উঠেছে, গত সোমবার ওই ছাত্রীকে স্কুলের শৌচাগারে যৌন নিপীড়ন করা হয়। সে তার বাবা-মাকে জানিয়েছে, তিনজন উঁচু ক্লাসের ছাত্রী ওই ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের মধ্যে একজন নবম শ্রেণিতে পড়ে। বাকি দু’জনকে চিহ্নিত করার জন্য ওই ছাত্রীর বাবা-মা অন্যান্য অভিভাবকদের পুরো ব্যাপারটা জানান। তারা জানান, স্কুল কর্তৃপক্ষকে। কিন্তু কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ অভিভাবকদের একাংশের।

আজ স্কুলের বাইরে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা। একবালপুর থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। নিগৃহীত ছাত্রীর বাবা-মা জানান, মেয়েটা ভয়ে সিঁটিয়ে রয়েছে। স্কুলের নাম শুনলেই কেঁদে উঠছে। 

যদিও পুলিশ জানিয়েছে, ওই ছাত্রীর পরিবার এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ থানায় জানায়নি। অভিযোগ করলে পুলিশ তদন্ত করবে। স্কুলের বাইরে যেন কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি না হয়, সে ব্যাপারেও সজাগ রয়েছে পুলিশ। স্কুলের গেটে বসানো হয়েছে নিরাপত্তা পুলিশ।

কলকাতার বেসরকারি স্কুলগুলোর ভিতর শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিয়ে বারবার প্রশ্ন উঠেছে। যৌন নিগ্রহ থেকে ছাত্রীর আত্মহত্যা গত এক বছরে এমন ঘটনা বেশ কয়েকবার ঘটেছে। 

দুই মাস আগে রানিকুঠির জিডি বিড়লা স্কুলের ছাত্রী কৃত্তিকা পালের আত্মহত্যার পর হাইকোর্ট পর্যন্ত নির্দেশ দিয়েছিল সমস্ত স্কুলের নিরাপত্তাকে আটোসাঁটো করার। শিক্ষামহলের অনেকের মতে, এই সমস্ত স্কুল প্রচুর টাকা বেতন নেয়। তবু পরিকাঠামো নিয়ে কোনো হেলদোল নেই। একটা করে ঘটনা ঘটে। একটু করে হাওয়া গরম হয়। তারপর আবার একই অবস্থা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা