kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

মুজফফরাবাদে ইমরান খান; কাশ্মীর নিয়ে নতুন চ্যালেঞ্জ জানাবেন?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ আগস্ট, ২০১৯ ১৭:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুজফফরাবাদে ইমরান খান; কাশ্মীর নিয়ে নতুন চ্যালেঞ্জ জানাবেন?

ভারতের দখলে থাকা জম্মু-কাশ্মীরের ওপর থেকে ৩৭০ ধারা অর্থাৎ স্বায়ত্তশাসনের নিয়মটি প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর থেকেই ভারত-পাকিস্তানের কূটনৈতিক সম্পর্ক চরমে। ইসলামাবাদ ও নয়াদিল্লি তাদের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করে নিয়েছে। সীমান্তে বন্ধ বাণিজ্য ও যাত্রী পরিবহনও। এই অবস্থায় পাকিস্তানের দখলে থাকা কাশ্মীরের অংশ পরিদর্শন করছেন ইমরান খান। এদিকে স্বাধীনতা দিবসের দিন ভারতকে কী বার্তা দেবেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সেই দিকে তাকিয়ে আন্তর্জাতিক মহল।

ইসলামাবাদে কড়া নিরাপত্তায় পালিত হচ্ছে পাক স্বাধীনতা দিবস। ১৯৪৭ সালের ১৪ অগস্ট ব্রিটিশ ভারত দ্বিখণ্ডিত হয়। তৈরি হয় পাকিস্তান। তার পর থেকে কাশ্মীর উপত্যকা নিয়ে দুই দেশের মধ্যে তীব্র টানাপোড়েন চলছেই। দুটি দেশ স্বাধীন হওয়ার পরেও কাশ্মীর ছিলো রাজাদের নিয়ন্ত্রিত এলাকা। পরে পাকিস্তানের দিক থেকে হামলা শুরু হয়। তখন কাশ্মীর রাজ হরি সিং ভারতে অন্তর্ভুক্তি মেনে নেন। ভারতীয় সেনা প্রতি আক্রমণ করে পাকিস্তানি হামলাকারীদের ওপর। পরে জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় নিয়ন্ত্রণ রেখা তৈরি হয়। তারই এক দিকে পড়ছে পাকিস্তানের দখলে থাকা কাশ্মীর। এই এলাকা স্বশাসিত। এখানকার রাজধানী হলো মুজফফরাবাদে।

আর মুজফফরাবাদে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সফরে গিয়েছেন। সেখানেই ভারতকে নতুন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

এদিকে জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার কেড়ে নেয়ার পর সেটি এখন ভারতের কেন্দ্রশাসিত এলাকা। এর বিরোধিতায় সরব পাকিস্তান। ইমরান খানের সরকার এর পরেই তীব্র কূটনৈতিক পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে জরুরি অধিবেশন ডাকার আহ্বান জানিয়েছে পাকিস্তান।

৩৭০ ধারা জম্মু-কাশ্মীর থেকে তুলে নেওয়ার পরই পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি বলেন, ‘আমরা যুদ্ধ চাই না, কিন্তু ভারত যুদ্ধ করতে চাইলে যুদ্ধ করা ছাড়া আর কোনো রাস্তা থাকবে না।’

পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে এই বার্তা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, ‘সমগ্র দেশ দেখছে পাকিস্তান কাশ্মীরবাসীর সঙ্গে রয়েছে এবং সবসময় তাদের সঙ্গে থাকতে প্রস্তুত। তিনি এও বলেন, কাশ্মীরবাসীকে সাহায্য থেকে তারা পিছু হটবেন না।’ এই বিষয় নিয়ে পাকিস্তান ইউএনএসসিতে যাবেন বলেও জানান আলভি। তার মতে, ‘নিয়ম নীতি ভেঙে জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ করেছে ভারত।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা