kalerkantho

বুধবার । ২১ আগস্ট ২০১৯। ৬ ভাদ্র ১৪২৬। ১৯ জিলহজ ১৪৪০

'জয় শ্রীরাম' ইস্যু : ওয়াইসির দলের বিক্ষোভ-অবরোধ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ আগস্ট, ২০১৯ ১৫:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'জয় শ্রীরাম' ইস্যু : ওয়াইসির দলের বিক্ষোভ-অবরোধ

'জয় শ্রীরাম' ইস্যুতে পশ্চিমবঙ্গে বিক্ষোভ-রেল অবরোধ

সম্প্রতি ভারতে কয়েকটি রাজ্যে 'জয় শ্রীরাম' ইস্যুতে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এবার 'জয় শ্রীরাম' ইস্যুতে দেশটির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে বিক্ষোভ করেছে আসাদুদ্দিন ওয়াইসির দল এআইএমআইএম। আজ বুধবার সকাল থেকে শিয়ালদহ-ডায়মন্ড হারবার শাখার সংগ্রামপুর স্টেশনে অবরোধ চলছে। এর ফলে ট্রেন চলাচল ব্যাহত হচ্ছে, বিপাকে পড়েছেন যাত্রীরা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনও অবরোধ চলছে। আপাতত শিয়ালদহ থেকে মগরাহাট পর্যন্ত ট্রেন চলছে। অন্যদিকে সংগ্রামপুরে স্টেশনে অবরোধের কারণে যে ট্রেনগুলি আটকে পড়েছে, সেই ট্রেনগুলিকে ফের ডায়মন্ড হারবার স্টেশনে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।


অভিযোগ উঠেছে, সম্প্রতি শিয়ালদহ-ক্যানিং শাখায় লোকাল ট্রেনে এক যাত্রীকে জোর করে 'জয় শ্রীরাম' বলানোর চেষ্টা করেন হিন্দুত্ববাদীরা। কিন্তু রাজি না হওয়ায় ওই ব্যক্তিকে বেধড়ক মারধর করা হয়। এই ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার সকাল থেকে আচমকা শিয়ালদহ-ডায়মন্ড হারবার শাখার সংগ্রামপুর স্টেশনে রেল অবরোধ শুরু করেন এআইএমআইএম-এর সদস্যরা। 

বিক্ষোভাকারীদের দাবি, শিয়ালদহ-ক্যানিং শাখার পার্ক-সার্কাস, তালদি, বেতবেড়িয়াসহ বিভিন্ন স্টেশনে যাত্রীদের জোর করে 'জয় শ্রীরাম' বলানোর চেষ্টা করছেন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের সদস্যরা। আর যারা রামনাম করতে অস্বীকার করেছেন, তাদের মারধর ও নানাভাবে হেনস্তা করা হচ্ছে। 

এসব জেনেও রেল কর্তৃপক্ষ কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। শেষ খবর অনুযায়ী, সংগ্রামপুর স্টেশনে এখনও পর্যন্ত অবরোধ চলছে।  ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে জিআরপি ও পুলিশ।

জানা গেছে, অবরোধের কারণে সংগ্রামপুর স্টেশনে আটকে পড়েছে একাধিক লোকাল ট্রেন। এমনকি, ডায়মন্ড হারবার ও দেউলিয়া স্টেশনেও দাঁড়িয়ে রয়েছে দুটি ট্রেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে আপাতত শিয়ালদহ থেকে মগরাহাট পর্যন্ত ট্রেন চালু রেখেছে রেল কর্তৃপক্ষ। তবে মগরাহাট থেকে ডায়মন্ড হারবার পর্যন্ত ট্রেন চলাচল পুরোপুরি বন্ধ। পরিস্থিতি কতক্ষণে স্বাভাবিক হবে, তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। 

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা