kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৭ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৭ সফর ১৪৪১       

আফগান ডন ইশাকজাইয়ের সঙ্গে একজোট হচ্ছেন দাউদ ইব্রাহিম!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ আগস্ট, ২০১৯ ১১:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আফগান ডন ইশাকজাইয়ের সঙ্গে একজোট হচ্ছেন দাউদ ইব্রাহিম!

দাউদ ইব্রাহিম (ফাইল ছবি)

মাদক সাম্রাজ্য বিস্তারের জন্য এবার নয়া উদ্যোগ নিয়েছেন দাউদ ইব্রাহিম। আফগানিস্তানের কুখ্যাত ডন হাজি লাল জান ইশাকজাইয়ের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছে ডি-কোম্পানি। ইতিমধ্যে এশিয়া ও আফ্রিকার একাধিক দেশে জাল বিস্তার করেছে ডি-কোম্পানি ও ইশাকজাইয়ের গ্যাং।

ভারতে ক্রমেই বাড়ছে মাদক পাচারচক্রের উপস্থিতি। নেপাল ও মিয়ানমার সীমান্ত দিয়ে দেশে ঢুকছে কোকেন, হেরোইন। এই বিষয়ে উদ্বিগ্ন ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা দপ্তর। 

জানা গেছে, সম্প্রতি ভারতসহ এশিয়া ও আফ্রিকার একাধিক দেশে হেরোইনের ব্যবসা ফেঁদে মূলধন বাড়ানোয় উদ্যোগ নিয়েছে ডি-কোম্পানি। সুদান, ইথিওপিয়া, কেনিয়া, তানজানিয়া, জিম্বাবুয়ে, নামিবিয়া ও ঘানায় মাদক পাচার পরিকাঠামো গড়ে তুলেছে দাউদ  ও ইশাকজাইয়ের সংগঠন।

গোয়েন্দা সূত্রে খবর, পাকিস্তানি ডার্ক স্টেট'-এর মদতে আফগানিস্তান থেকে ভারতে মাদক পাচার করার চেষ্টা করছে ডি-কোম্পানি। বড় মুনাফার টোপ দিয়ে সেই পরিকল্পনায় এবার ইশাকজাইকে টেনেছে দাউদ। মাদক পাচারের দুনিয়ায় ইশাকজাইয়ের দাপট নতুন নয়। 

উল্লেখ্য, মাদক পাচার বিরোধী ভাষণে ইশাকজাইয়ের নাম উল্লেখ করেছিলেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। এর কিছু দিনের মধ্যেই ইশাকজাইকে গ্রেপ্তার করা হয়। মাদক পাচারে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তাকে ২০ বছরের কারাদণ্ড ঘোষণা করে আফগানিস্তানের জেলে পাঠানো হয়। প্রথমে কাবুলের জেলে রাখা হলেও পরে প্রভাব খাটিয়ে সে কান্দাহারের জেলে পৌঁছায়, এবং রক্ষীদের ঘুষ দিয়ে পালায়। জানা গেছে, এরপরে সে পাকিস্তানের কোয়েটায় ঘাঁটি গেড়েছে।

সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা