kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

কাশ্মীর নিয়ে ফাঁদ পেতেছিলেন ট্রাম্প! মারিয়ামের রোষানলে ইমরান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ আগস্ট, ২০১৯ ১১:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাশ্মীর নিয়ে ফাঁদ পেতেছিলেন ট্রাম্প! মারিয়ামের রোষানলে ইমরান

মারিয়াম; ইমরান খান

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র সফরে গিয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সে সময় ইমরান খানকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান, কাশ্মীর সমস্যার সমাধানে তাঁকে যদি মধ্যস্থতা করতে বলা হয়, তাহলে তা তিনি করতে রাজি রয়েছেন। এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট দাবি করেন যে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তাঁকে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে বলেন। যদিও ভারত তা নস্যাৎ করে দেয়। আর গতকাল সোমবার ঐতিহাসিক ঘোষণায় ভারত সরকার কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেয়। এরপরই সীমান্তের ওপারে ক্ষোভে ফুঁসে ওঠে পাকিস্তান। গোটা পাকিস্তানের নিশানায় আপাতত সে দেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের কন্যা মারিয়ামও তাঁকে তোপ দাগতে ছাড়েননি।

মঙ্গলবার পাকিস্তানের সারগোধাতে মারিয়াম শরিফের নেতৃত্বে কাশ্মীর নিয়ে একটি মিছিল শুরু হবে। তার আগে , টুইটারে মারিয়াম শরিফ প্রশ্ন তোলেন, কাশ্মীরে মধ্যস্থতা নিয়ে ট্রাম্পের প্রস্তাব কি একটি ফাঁদ ছিল? ভারতকে 'শত্রু' হিসাবে তকমা দিয়ে মারিয়ামের প্রশ্ন, ইমরানকি শত্রুদের ষড়যন্ত্র বুঝে নিতে পারেননি? পাশাপাশি মারিয়ামের দাবি, নিজের রাজনৈতিক স্বার্থ নিয়ে ইমরান এতটাই ব্যস্ত ছিলেন যে , পাকিস্তানকে একটি বড় সমস্যার দিকে ঠেলে দিয়েছেন তিনি। 

মারিয়াম টুইটে লেখেন, ইমরান 'শুধু পাকিস্তানেরই বড় ক্ষতি করেননি, যেসব কাশ্মীরি পাকিস্তান থেকে পোক্ত সমর্থন আশা করেছিলেন, তাঁদেরও ক্ষতি করেছেন।'

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার পর গোটা পাকিস্তানের রোষের মুখে পড়েছেন ইমরান খান। ইমরান খানের প্রাক্তন স্ত্রী রেহামও ইমরানকে 'পুতুল' বলতে ছাড়েননি। 

কাশ্মীর প্রসঙ্গে ইমরানের ওপর ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে তিনি বলেন, ইমরান রাজনৈতিকভাবে দূরদৃষ্টি হারিয়ে ফেলেছেন। 

একই অভিযোগে সরব হয়েছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে মারিয়ামও।

সূত্র : ওয়ান ইন্ডিয়া 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা