kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

পশ্চিমবঙ্গের পাঠকদের কাছে অন্যপ্রকাশ

অনিতা চৌধুরী, কলকাতা    

২৩ জুলাই, ২০১৯ ২১:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পশ্চিমবঙ্গের পাঠকদের কাছে অন্যপ্রকাশ

বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় প্রকাশনা সংস্থা অন্যপ্রকাশের নির্বাচিত বই এবার পাওয়া যাবে পশ্চিমবঙ্গে। ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রকাশনার উদ্যোগ 'বই-সাঁকোর' এই নতুন প্রয়াসের মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গের বইপ্রেমী মানুষের অনেক দিনের আক্ষেপ মিটবে এবার। এতদিন বাংলাদেশে প্রকাশিত বই কলকাতায় পাওয়া যেত না। ফলে সাহিত্য স্বাদ থেকে বঞ্চিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গে পাঠকরা।

আজ মঙ্গলবার কলকাতার বই পাড়া কলেজ স্ট্রিটে এক মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গে যাত্রা শুরু করল অন্যপ্রকাশ।

অন্যপ্রকাশের প্রতিষ্ঠাতা মাজহারুল ইসলাম জানান, আজকের দিনটা পাঠক এবং লেখকদের জন্য  আনন্দের দিন। যারা বাংলাদেশের বইপ্রেমী তারা পশ্চিমবঙ্গে যেকোনো সময় পত্রভারতীর অন্যপ্রকাশের কর্নার থেকে বই কিনতে পারবেন এবং বইমেলার জন্য অপেক্ষা জন্য করতে হবে না।  আপাতত আমরা ৩০০ নির্বাচিত বই নিয়ে এই কর্নারটি করেছি। অন্যদিকে ঢাকায় অন্য প্রকাশের স্টলে পত্রভারতীতে পশ্চিমবঙ্গের লেখকদের বই পাওয়া যাবে।

মাজহারুল ইসলাম বলেন, কিছুদিন আগে হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যুবার্ষিকী গেল। তার শ্রদ্ধার্ঘ্য স্বরূপ আজকের এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি করা হয়েছে।

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কলকাতায় বাংলাদেশ উপদূতাবাসের উপরাষ্ট্রদূত তৌফিক হাসান এবং লেখক প্রচেত গুপ্ত।

দুই বাংলার সাহিত্যপ্রেমী মানুষের প্রিয় কথা সাহিত্যিক সমরেশ মজুমদার এই প্রয়াসকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, আমি খুশি যে এইরকম একটা চেষ্টা চলছে। বাংলাদেশের উন্নত মানের সাহিত্য এপার বাংলার মানুষের কাছে সহজে পৌঁছে যাবে এটা ভেবে ভালো লাগছে।

বই প্রেমিক পলাশ চ্যাটার্জী বলেন, হুমায়ূন আহমেদ, হুমায়ুন আজাদ, আনিসুল হক, ইমদাদুল হক মিলন, সাদাত হোসেনের মতো লেখকরা পশ্চিমবঙ্গে যথেষ্ট সমাদৃত। তাদের বই অনেক কষ্ট করে পেতে হতো আমাদের। অপেক্ষা করতে হতো বইমেলার জন্য। এবার সারা বছর পাওয়া যাবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা