kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

গুলি করে হাতিকে হত্যা করে ভূরিভোজের আয়োজন!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ জুলাই, ২০১৯ ১৭:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গুলি করে হাতিকে হত্যা করে ভূরিভোজের আয়োজন!

ভারতের নাগাল্যান্ডের জুনেবেতো জেলায় একটি হাতিকে গুলি করে হত্যা করে ভূরিভোজের আয়োজন করে স্থানীয়রা। গত বুধবার ঘটনাটি ঘটে। জুনেবেতোর লিটামি গ্রামের পাশে একটি জঙ্গলে গুলি করে হত্যা করা হয় পূর্ণবয়স্ক হাতিটিকে। তার পরে তার চামড়া ছাড়িয়ে, গ্রামবাসীদের মধ্যে বিলি করা হয় মাংস! গোটা গ্রাম মিলে মহা উল্লাসে চলে ভূরিভোজ।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, হাতিটির চামড়া ছাড়ানো ও মাংস বিলি করার ছবি তুলে তা পোস্টও করা হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। মুহূর্তে তা ভাইরাল হয়ে যায়। রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়ে প্রতিক্রিয়া দেন পশুপ্রেমীরা। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি করে একাধিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনো কোনো ধরনের মন্তব্য করেনি নাগাল্যান্ডের বন দপ্তর। ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কাউকে আটকও করা হয়নি। এমনকী ওই হাতিটি বন্য না কারও পোষা, সেই বিষয় নিয়েও রয়েছে ধোঁয়াশা।

এদিকে কয়েক দিন আগেই মিজোরামে একটি মৃত হাতির মাংস খাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে তুঙ্গে উঠেছিল বিতর্ক। জানা যায়, আসামের কাছাড় জেলার এক ব্যক্তির কাছ থেকে এই হাতি ভাড়া করে নিয়ে যান মিজোরামের এক কাঠের ব্যবসায়ী। সেই হাতির নাম ছিল লক্ষ্মী। মোটা কাঠের লগ টানার কাজ করতো লক্ষ্মী। কয়েক দিন আগে এই লক্ষ্মী মারা যায়। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, অতি পরিশ্রমেই মারা গিয়েছিল ৪৭ বছরের লক্ষ্মী।

নিয়মমাফিক মৃত হাতিটিকে সৎকার করার কথা ছিল বন দপ্তরের। তবে অভিযোগ ওঠে, দপ্তরের কার্মকর্তাদের সামনেই হাতির মাংস বিলি করা হয়। ওই ঘটনার প্রতিবাদে পরিবেশ ও বন মন্ত্রীকে চিঠি লিখেছিলেন বিশিষ্ট পশুপ্রেমী সুপর্ণা গঙ্গোপাধ্যায়। ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবি তুলেছিলেন তিনি।

সূত্র: দ্য ওয়াল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা