kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

উপন্যাস ‘চুরি’র দায়ে ৩৩ জনকে পুড়িয়ে হত্যা করলেন ‘লেখক’!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জুলাই, ২০১৯ ১৭:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উপন্যাস ‘চুরি’র দায়ে ৩৩ জনকে পুড়িয়ে হত্যা করলেন ‘লেখক’!

তার লেখা উপন্যাস চুরি করেছে এমন ধারণা থেকে জাপানের বিখ্যাত অ্যানিমেশন স্টুডিওতে আগুন দিয়ে ৩৩ জনকে হত্যা করেছেন  শিনজি আওবা নামের এক ব্যক্তি।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকালে জাপানের কিয়োটো শহরের কিয়ো’আনি অ্যানিমেশন স্টুডিওতে পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন শিনজো আওবা। এতে ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন আরো অনেকে।

ঘটনার দিনই পুলিশ সন্দেহভাজন অগ্নিসংযোগকারী হিসেবে আটক করে শিনজোকে।

জাপানের সরকারি সংবাদমাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, ৪১ বছর বয়সী শিনজি আওবা ২০১২ সালে টোকিওর একটি দোকানে ডাকাতির অপরাধে জেল খেটেছে। ছাড়া পাওয়ার পর সাজাপ্রাপ্তদের জন্যে তৈরি বাসস্থানে থাকত সে। মানসিক অসুস্থতার জন্যে চিকিৎসাও করা হয়েছে তার।

পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে এক বালতি পেট্রল নিয়ে বিল্ডিংয়ের গেটের সামনে এসে তাতে আগুন লাগিয়ে দেয় ওই ব্যক্তি। তার আগে চিৎকার করে বলে ‘সবাই মরো’।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রচণ্ড বিস্ফোরণে তিন তলা ভবনটিতে আগুন ধরে যায় ও ভবনটি মুহূর্তেই পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

একজন অগ্নিদগ্ধ এনএইচকে-কে জানায়, হামলাকারীকে বেশ রাগান্বিত ও অস্থির দেখাচ্ছিল। সে চিৎকার করে বলছিল, তোমরা চুরি করেছ! আমাকে নিঃশেষ করেছ।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আওবা জানিয়েছে, তার মনে হয়েছিল এই স্টুডিও তার লেখা উপন্যাস চুরি করেছে। সেই রাগেই আগুল লাগিয়ে দিয়েছিল সে।

এই স্টুডিয়োতে প্রায় ১৬০ জন কর্মী ছিলেন। তাদের গড় বয়স ৩৩-এর আশেপাশে।

জাপানের গত বিশ বছরের ইতিহাসে এমন ঘটনা আর ঘটেনি। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা