kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

বিহারে ভেসে আসা অর্জুন মনে করালো সিরিয়ার আইলান কুর্দির কথা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ জুলাই, ২০১৯ ২২:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিহারে ভেসে আসা অর্জুন মনে করালো সিরিয়ার আইলান কুর্দির কথা

বানের পানিতে ডুবে মারা যাওয়ার পর মাত্র তিন বছরের অর্জুনের নিথর দেহ ভেসে এসেছে। তার মুষ্টিবদ্ধ দুই হাত আর ছড়ানো পা দেখে মনে হতে পারে যে, শিশু খেলা করছে।

অথচ মা ও ভাইবোনের সঙ্গে গতকাল বুধবার সকালে ভারতের বিহারের বাগমতী নদীর ধারে বন্যার স্রোতে ভেসে যায় অর্জুন। আজ বৃহস্পতিবার তার নিথর দেহ ভেসে আসে। অর্জুনের নিথর দেহের সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

গত বুধবার রানি দেবী নামে এক নারী তার চার সন্তানকে নিয়ে বাগমতী নদীতে যান। কাপড় ধোয়ার পর গৃহস্থালির কাজ করার কথা ছিল তার।  অথচ নদীর ধারে যাওয়ার পর প্রবল ঢেউয়ে ভেসে যায় অর্জুন। 

অর্জুনকে বাঁচাতে তিন সন্তানসহ নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়েন তার মা। সঙ্গে সঙ্গে আশপাশের লোকজন তাদের উদ্ধার করতে এগিয়ে আসেন। কিন্তু রানির ছেলে অর্জুন, রাজা ও জ্যোতি ভেসে যায় নদীতে। 

কোনো মতে রানি ও তার মেয়ে রাধাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়। এরপর বৃহস্পতিবার অর্জুনের দেহ ভেসে আসে। আর অর্জুনের নিথর দেহের সেই ছবি সারা ভারতে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

বানের পানিতে ভেসে যাওয়া অর্জুনের মরদেহ দেখে নেটিজেনদের মন ভার। এই ঘটনা তাদের মনে করিয়ে দিচ্ছে অসহায় শিশুমৃত্যুর বেশ কয়েকটি ঘটনা। 

২০১৫ সালে সিরিয়ার তিন বছরের শিশু আইলান কুর্দিও ভূমধ্যসাগরের ধারে পড়েছিল এভাবেই। চলতি বছর মেক্সিকো থেকে যুক্তরাষ্ট্র পাপড়ি দেয়ার পথে রিয়ো গ্রান্ডে নদীর কাছে উদ্ধার হয় বাবা ও মেয়ের মরদেহ। অস্কার আলবার্তো মার্তিনেজকে জড়িয়ে ধরে ছিল তার ২৩ মাসের শিশুকন্যা অ্যাঞ্জি। সেই ছবিও আলোড়ন তুলেছিল সারাবিশ্বে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা