kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

কলা গাছের গুঁড়িতে বেঁধে বাংলাদেশে গরু পাচার! গ্রেপ্তার ৩

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ জুলাই, ২০১৯ ১০:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলা গাছের গুঁড়িতে বেঁধে বাংলাদেশে গরু পাচার! গ্রেপ্তার ৩

কলা গাছের গুঁড়িতে বেঁধে ভারত থেকে বাংলাদেশে গরু পাচার হচ্ছে

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গ থেকে কলা গাছের গুঁড়িতে গরু বেঁধে বাংলাদেশে পাচার হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কলা গাছের গুঁড়ির মাঝে গরু বেঁধে পানিতে ভাসিয়ে দেয় চোরাকারবারিরা। পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গ এলাকার বন্যায় ফুঁসে উঠেছে গঙ্গা। আর এই অবস্থাকে কাজে লাগিয়ে এভাবেই বাংলাদেশে গোরু পাচারের ছক কষেছে  চোরাকারবারিরা। ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) তৎপরতার সঙ্গে তার অনেকটাই ঠেকাতে সক্ষম হয়েছে। তারা তিন বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করে ৷ এই ঘটনায় ২২৪টি গরু উদ্ধার করা হয়েছে। 

এভাবেই গোরু পাচারের চেষ্টা চলছিল। দু'দিকে দুটো কলা গাছের গুঁড়ি। মাঝখানে শক্তপোক্ত করে বাধা হয়েছে গরু। গরুর মুখ বাধা যাতে আওয়াজ না করতে পারে। ঘাড় ঘুরিয়ে ছিঁড়ে ফেলতে না পারে বাঁধন । এভাবেই মালদা এবং মুর্শিদাবাদের পাহাগাতি, ফুলতলা, লালপুর, কমলপুর, ধুলিয়ান সীমান্তে গঙ্গায় ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছিল দু'শর বেশি গরু। বিশেষ প্রযুক্তিতে তা বুঝতে পারে বিএসএফ। তারপর স্মাগলিং ঠেকাতে স্পিডবোট নিয়ে বেরিয়ে পড়ে তারা। পাচারকারীদের সঙ্গে রীতিমতো লড়াই চালিয়ে উদ্ধার করা হয় ১০৩টি গরু।

এদিকে রানিনগর থানা এলাকায় রীতিমতো অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাংলাদেশ এবং ভারতীয় স্মাগলাররা ভোররাতে গরু পাচারের চেষ্টা চালাচ্ছিল । তাদের হাতে ছিল গাঁইতি, তলোয়ারসহ অন্যান্য অস্ত্রশস্ত্র । বিএসএফ জওয়ানরা বুঝতে পারেন, স্মাগলাররা ঘিরে ফেলেছে তাঁদের । আত্মরক্ষার্থে চালাতে হয় দু'রাউন্ড গুলি। ওই এলাকা থেকে ১২১ টি গোরু উদ্ধার করেন জওয়ানরা। গ্রেপ্তার করা হয় বাংলাদেশের রাজশাহীর জাহিরুল ইসলাম ও মোহম্মদ ডালিম রেজা এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের মোহম্মদ রকিকে । 

বিএসএফ জানতে পেরেছে, এই দলটির সঙ্গে যোগ রয়েছে ভারতীয় দুই স্মাগলারের। তারা হলেন রানিনগরের বিন্দা মণ্ডল, ইসলামপুরের মুর্তজা শেখ । খবর যায় রানিনগর থানায় ৷ তাদের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি। 

সূত্র : ইটিভি ভারত 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা