kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

'জয়শ্রীরাম' নিয়ে অমর্ত্য সেনের উদ্ধৃতির ব্যানারে ছেয়ে গেল শহর!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুলাই, ২০১৯ ১১:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'জয়শ্রীরাম' নিয়ে অমর্ত্য সেনের উদ্ধৃতির ব্যানারে ছেয়ে গেল শহর!

'জয়শ্রীরাম' নিয়ে অমর্ত্য সেনের উদ্ধৃতির ব্যানারে ছেয়ে গেছে রায়গঞ্জ শহর

সম্প্রতি জয়শ্রীরাম ধ্বনি নিয়ে সাড়া জাগানো বক্তব্য দিয়েছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। তাঁর বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে পশ্চিমবঙ্গের রায়গঞ্জ শহরে ব্যানারে-ব্যানারে ছেয়ে গেছে। 

সম্প্রতি অমর্ত্য সেনের জয়শ্রীরাম ধ্বনি নিয়ে করা মন্তব্য নিয়ে বিতর্কের ঝড় ওঠে। ভারতের কেন্দ্রীয় ও রাজ্য বিজেপি নেতারা অমর্ত্য সেনকে কটাক্ষও করেন। অমর্ত্য সেনের সেই মন্তব্যই ব্যানারগুলোতে উদ্ধৃত করা হয়েছে। ব্যানারগুলোতে লেখা হয়েছে, 'জয়শ্রীরাম স্লোগান আগে কখনো শুনিনি। ইদানিং মানুষকে মারার জন্য এটি ব্যবহার করা হচ্ছে। আমার মনে হয় না বাংলার সংস্কৃতির সঙ্গে এই স্লোগানের কোনো যোগ আছে । আমি আমার চার বছরের নাতনিকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম তাঁর পছন্দের ভগবান কে?-তাঁর উত্তর মা দুর্গা । মা দুর্গার সঙ্গে কখনও রাম নবমীর তুলনা হয় না।'

অমর্ত্য সেনের ছবির পাশে তাঁর ওই মন্তব্য দিয়ে ব্যানারের নীচে লেখা হয়েছে, নাগরিকদের পক্ষ থেকে প্রচারিত। কে বা কারা কোন উদ্দেশে এই ব্যানার লাগিয়েছে তাই নিয়ে রায়গঞ্জের রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপি সভাপতি নির্মল দাম বলেন, রাতের অন্ধকারে তৃণমূল কংগ্রেসই এই ব্যানার লাগিয়েছে। বাংলার সংস্কৃতি কী ? তা না জেনেই অমর্ত্য সেন মন্তব্য করেছেন। যারা এই ব্যানার লাগিয়েছেন তাদের এবং অমর্ত্য সেনের মন্তব্যের আমরা নিন্দা করছি।

এদিকে, রায়গঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান এবং জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সম্পাদক সন্দীপ বিশ্বাস বলেছেন, আমরা জানি না কে বা কারা ওই ব্যানার লাগিয়েছে। তবে যারাই এই কাজ করুক আমরা তাদের সমর্থন করছি । জয়শ্রীরাম স্লোগান আসলে ধর্মীয় বিভেদ সৃষ্টি করতেই বিজেপি ব্যবহার করে। 

উত্তর দিনাজপুর জেলা কংগ্রেসের সভাপতি এবং রায়গঞ্জের বিধায়ক মোহিত সেনগুপ্ত বলেছেন, আমরা অমর্ত্যবাবুর মন্তব্য সমর্থন করি। তবে ওই ব্যানার আমরা লাগাইনি। এখন জয়শ্রীরাম স্লোগান শুনলে আমাদের ভয় হয়। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বিরুদ্ধে ওই স্লোগান দেয় বিজেপি। 

এ বিষয়ে সিপিআই (এম)-র জেলা সম্পাদক তথা জেলা বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান অপূর্ব পাল বলেছেন, আমরা অমর্ত্য সেনের বক্তব্যকে সমর্থন করি। কে বা কারা ওই ব্যানার লাগিয়েছে তা জানি না । তবে এখন জয়শ্রীরাম স্লোগান শুধুমাত্র মানুষের মধ্যে ভেদাভেদ সৃষ্টি করার জন্যই ব্যবহার করা হয় ।

সূত্র : ইটিভি ভারত 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা