kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২২ আগস্ট ২০১৯। ৭ ভাদ্র ১৪২৬। ২০ জিলহজ ১৪৪০

জঙ্গিরা না, ড্রাগ গ্যাং হামলা চালিয়েছিল শীলঙ্কায়?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ জুলাই, ২০১৯ ১৭:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জঙ্গিরা না, ড্রাগ গ্যাং হামলা চালিয়েছিল শীলঙ্কায়?

ইস্টার সানডের সকালে শ্রীলঙ্কার তিনটি গীর্জা ও তিনটি হোটেলে ভয়াবহ সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় ২৫৮ জনের প্রাণহানি ঘটে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন শত শত মানুষ। একের পর এক বিস্ফোরণ রীতিমতো সন্ত্রস্ত করে তুলেছিল সেখানের মানুষকে। ঘটনার পরই নৃশংস হত্যাকাণ্ডের দায় শিকার করে জঙ্গি সংগঠন আইএসা।

হামলার অনেকদিন পর সেই বীভৎস রূপের স্মৃতি ক্রমেই কাটিয়ে বেরিয়ে আসছিল শ্রীলঙ্কা। আর এরকম এক পরিস্থিতিতে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মাইত্রিপালা সিরিসেনা প্রকাশ্যে আনলেন এক চাঞ্চল্যকর তথ্য।

কী বলছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট ?

গত এপ্রিল মাসে শ্রীলঙ্কায় ঘটে যাওয়া জঙ্গি হামলার নেপথ্যে ন্যাশনাল তওহিদ জামাত গোষ্ঠীর নাম উঠে আসে। যার সঙ্গে আইএসা-এর যোগ রয়েছে বলেও জানা যায়। তবে বর্তমানে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মাইত্রিপালা সিরিসেনা জানিয়েছেন, সেদেশের ২৫৮ জনকে হত্যার নেপথ্যে রয়েছে ওকডি ভয়ঙ্কর ড্রাগ গ্যাং।

কেন ড্রাগ গ্যাং এর নাম উঠে আসছে?

মাইত্রিপালা সিরিসেনা দাবি, গোটা শ্রীলঙ্কা জুড়ে ড্রাগ গ্যাং এর পর্দাফাঁস করা নিয়ে তার সরকার ব্যাপক তৎপরতা দেখিয়েছিল। বিভিন্ন জায়গা থেকে ড্রাগ ডিলারদের ধরপাকড় করেছে শ্রীলঙ্কা প্রশাসন। অবৈধ মাদক পাচারকারীদের এই জাল ছিন্ন করার নেপথ্যে প্রেসিডেন্ট সিরিসেনা ছিলেন বলে, বদলা নিতে কলম্বোতে বোমা বিস্ফোরণের নেপথ্যে ছিল এই ড্রাগ গ্যাং।

এদিকে যখন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট এমন কতা বলছেন যে, চার্চে বোমা বিস্ফোরণের নেপথ্যে রয়েছে ড্রাগ গ্যাং, তখন ২ সপ্তাহ আগেই গোটা বিষয়ে তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ করে রিপোর্ট জমা দিয়েছে শ্রীলঙ্কা প্রশাসন। আর রিপোর্টে চার্চে বোমা বিস্ফোরণের নেপথ্যে জঙ্গিদের নামই উঠে এসেছে। আর সেই রিপোর্টকেই শিলমোহর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে।

সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া, চ্যানেল নিউজ এশিয়া।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা