kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

গৃহবধূর শ্লীলতাহানি করতে গিয়ে ধরা পড়ল ভূত!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ জুলাই, ২০১৯ ১৭:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গৃহবধূর শ্লীলতাহানি করতে গিয়ে ধরা পড়ল ভূত!

ভারতের পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়াপুর এলাকার থান্ডারপাড়ায় গৃহবধূর শ্লীলতাহানি করতে গিয়ে ধরা পড়ল ভূত! আর এই ঘটনায় স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে দায়ের করা হয়েছে শ্লীলতাহানির অভিযোগ। আর ওই পলাতক ভূতকে ধরতে খুঁজছে পুলিশ!

শ্লীলতাহানির শিকার ওই গৃহবধূর অভিযোগ, মাসখানেক ধরে তাদের বাড়িতে ভূতের উপদ্রব শুরু হয়। সন্ধ্যা হলেই শোনা যেত নানান রকম আওয়াজ, রাত বিরেতে ঢিল পড়ত ঘরের চালে। পরে গত রবিবার রাতে একেবারে ঘরে ঢুকে পড়ে ভূত। জড়িয়ে ধরে গৃহবধূকে। ব্লাউজ ছিঁড়ে শ্লীলতাহানি করে। তবে দমে না-গিয়ে চিত্কার করে পরিবারের অন্যান্যদের জাগিয়ে তোলেন তিনি। ধরা পড়ে যায় ভূত। 

তাকে ধরার পর পরিবারের লোকজন দেখতে পান, এই ভূত অন্য কেউ নয়। ভূত আসলে প্রতিবেশী যুবক সুরজ শেখ।

কিছুক্ষণের মধ্যে চলে আসেন প্রতিবেশীরাও। সুরজকে মারধর শুরু করেন তারা। এরই মধ্যে অভিযুক্তের পরিবারের লোকেরা এসে তাকে নিয়ে চলে যান। 

শ্লীলতাহানির শিকার ওই নারী জানিয়েছেন, প্রতিবেশী যুবক সুরজ শেখ মুখে পাউডার ও গায়ে কালি মেখে ভূত সেজে এসেছিলেন তার বাড়িতে। ভূত সেজে আসলেও তিনি হাল ছাড়েননি। তাকে জাপটে ধরেন। তার পরই বের হয়ে আসে আসল রূপ। 

ওই ঘটনার পর কাটোয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন ঘটনার শিকার ওই নারীর পরিবার। তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে সুরজ শেখের মাকে আটক করেছে পুলিশ। সুরজ শেখের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি।

সূত্র: জিনিউজ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা