kalerkantho

বুধবার । ১৭ জুলাই ২০১৯। ২ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৩ জিলকদ ১৪৪০

মাকে দুই বছর ধরে খুঁজে কুয়োয় মিলল কঙ্কাল, চশমা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ জুন, ২০১৯ ১৪:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাকে দুই বছর ধরে খুঁজে কুয়োয় মিলল কঙ্কাল, চশমা

প্রতীকী ছবি

ভারতের কংগ্রেস দলীয় এক নেতার বাড়ির কুয়া থেকে উদ্ধার হয়েছে তারই মায়ের মাথার খুলি, হাড় তথা কঙ্কাল। এর সঙ্গে মায়ের চশমার  ফ্রেমও উদ্ধার করা হয়েছে। এগুলো গতকাল সোমবার দার্জিলিং জেলা কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক বিমলেশ ভৌমিকের বাড়ির কুয়া থেকে উদ্ধার হয়েছে।  

শিলিগুড়ির দেশবন্ধুপাড়ায় ওই নেতার মা গত দুবছর ধরে নিখোঁজ ছিলেন। এই ঘটনায় প্রতিবেশীর দিকে আঙুল তুলেছেন ওই নেতা। তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআরও দায়ের করা হয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে হঠাৎই নিখোঁজ হয়ে যান বিমলেশ ভৌমিকের মা শেফালি ভৌমিক (৭৫)। এরপর বহু জায়গায় খোঁজ চালান বিমলেশ ভৌমিক। থানাতেও অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। 

ছেলের দাবি, তাঁর মাকে খুন করে প্রতিবেশী শ্রীমোহন শিকদার বাড়ির কুয়ায় ফেলে দিয়েছে। এ ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।

বিমলেশের দাবি, শ্রীমোহন শিকদার নিজের বাড়িতে অবৈধ নির্মাণ করছিলেন। পৌরসভায় অভিযোগ জানিয়েছিলেন তিনি। সেই আক্রোশেই তাঁর মাকে অপহরণ করেন শ্রীমোহন। থানায় ওই বৃদ্ধাকে অপহরণের অভিযোগও দায়ের করেছিলেন তিনি। এমনকি, পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ হাইকোর্টে মামলাও করা হয়। শিলিগুড়ি কমিশনারেটকে তিরস্কারও করেছিল আদালত। 

এদিকে, বিমলেশের স্ত্রীর দাবি, দিন কয়েক আগে যখন বাড়িতে পুজা করছিলেন, তখন কুয়াতে ভারী কিছু পড়ার শব্দ পান। বাইরে বেরিয়ে দেখেন, তাঁদের বাড়ির কুয়া থেকে লাঠি দিয়ে কিছু একটি তোলার চেষ্টা করছেন প্রতিবেশী শ্রীমোহন শিকদার। তিনি আবার পেশায় পুলিশ। ঘটনাটি পুলিশকে জানান শেফালিদেবীর ছেলে বিমলেশ। কুয়াটি পরিষ্কার করানোর পরামর্শ দেয় পুলিশ। বলা হয়, কুয়া পরিষ্কারের সময়ে পুলিশের পদস্থ কর্মকর্তাও হাজির থাকবেন। সোমবার সকালে পুলিশের উপস্থিতিতে যখন কুয়া পরিষ্কার করা হচ্ছিল, তখন সেখান থেকে একটি মানুষের কঙ্কাল পাওয়া যায়। ঘটনাটি জানাজানি হতেই শোরগোল পড়ে যায় শিলিগুড়ি দেশবন্ধুপাড়ায়।

শিলিগুড়ি থানা সূত্রে জানানো হয়েছে, উদ্ধার হওয়া হাড় ও কঙ্কাল পাঠানো হয়েছে হাসপাতালে। পরীক্ষা নিরীক্ষার পরই এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে। 

সূত্র : জি-নিউজ 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা