kalerkantho

সোমবার । ২২ জুলাই ২০১৯। ৭ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৮ জিলকদ ১৪৪০

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভায় নিষিদ্ধ 'জয় শ্রী রাম’ স্লোগান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জুন, ২০১৯ ২১:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভায় নিষিদ্ধ 'জয় শ্রী রাম’ স্লোগান

এতদিন লড়াইটা ছিল তৃণমূল বনাম বিজেপির। এবার সামান্য দিশা বদলে উঠে এসেছে ‘জয় শ্রী রাম' বনাম ‘জয় হিন্দ' দ্বন্দ্ব। আর সেই দ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করেই নতুন নির্দেশনা জারি করলেন পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার স্পিকার বিমান ব্যানার্জি। 

দু'পক্ষের বিধায়কদেরই তার নির্দেশ, বিধানসভার কোনো অধিবেশনে দেওয়া যাবে না এ ধরনের স্লোগান। কারণ, এই ধরনের বিশেষ স্লোগান সংবিধান বহির্ভূত। এই নিয়ে বিমানবাবু সমস্ত দলের বিধায়ক ও শাসকদলের নেতা-মন্ত্রীদের নিয়ে নিজ কক্ষে বৈঠকও করেন। 

তারপরেই তৃণমূলের পক্ষ থেকে পার্থ চ্যাটার্জি জানান, আগামী দিনে এই ধরনের ধ্বনি বা স্লোগান না শোনাটাই বাঞ্ছনীয়। কারণ, এগুলো পুরোটাই সংবিধান বিরোধী। যদিও স্পিকারের এই নির্দেশ অবজ্ঞা করে বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই ধ্বনি তারা আগামী দিনেও দেবেন। 

ঘটনার সূত্রপাত চলতি সপ্তাহেই। সপ্তাহের শুরুতে উপনির্বাচনে জিতে আসা আট নতুন বিধায়ককে বিধানসভায় শপথবাক্য পাঠ করাচ্ছিলেন স্পিকার। সেখানেই হাবিবপুরের বিজেপি বিধায়ক জয়েল মুর্মু শপথ পাঠের পরে বলে ওঠেন জয় শ্রীরাম। 

তখনই তাকে বাধা দেন স্পিকার। তিনি বলেন, এ ধরনের স্লোগান আবারো তার মুখে শুনলে পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবেন। এরপরেই উলুবেড়িয়া পূর্বর বিধায়ক ইদ্রিশ আলি শপথ পাঠ করেই বলে ওঠেন জয় হিন্দ! সঙ্গে সঙ্গে তিনিও ধমক খান বিমানবাবুর।

স্লোগান বন্ধের নির্দেশ দিতেই নিমিষেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বিধানসভা। মাদারিহাটের বিজেপি বিধায়ক মনোজ তিগ্গা জানান, আমরা এই স্লোগান দেবই এবং শুধু আজ নয়, আগামীকাল থেকে চলতি বছরের যে বাজেট অধিবেশন বসবে সেখানেও আমরা গলা ছেড়ে বলব জয় শ্রী রাম।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা