kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

শপথের পর স্বাক্ষর দিতে ভুলে গেলেন রাহুল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ জুন, ২০১৯ ২১:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শপথের পর স্বাক্ষর দিতে ভুলে গেলেন রাহুল

চতুর্থবারের মতো সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হওয়া রাহুল গান্ধী সোমবার শপথ নিলেন সপ্তদশ লোকসভায়। রাহুল সোমবার সংসদের রেজিস্ট্রারে সই করতে ভুলে গিয়েছিলেন। তখন তাকে সে ব্যাপারে স্মরণ করিয়ে দেন কয়েকজন কর্মী ও কয়েকজন সাংসদ, যাদের মধ্যে অন্যতম রাজনাথ সিং। 

গত মাসে কেরালার ওয়ানাদ থেকে নির্বাচিত হয়েছেন রাহুল। তিনি তার পরিবারের রাজনৈতিক ঘাঁটি উত্তরপ্রদেশের আমেঠী থেকেও নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু বিজেপি নেত্রী ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির কাছে হেরে যান ৫৫ হাজারেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে।

ওই হার থেকে কংগ্রেসের খারাপ পারফরম্যান্সকেই চিহ্নিত করে। সোমবার বিকেলে ইংরেজিতে শপথ নেন রাহুল। তারপরই তিনি হাঁটা দেন তার জন্য নির্ধারিত আসনের দিকে। তখনই তাকে সই না করার ব্যাপারটি স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়। তিনি তখন রেজিস্ট্রারে সই করেন এবং ফিরে যান। তাকে স্বাগত জানান তার মা সোনিয়া গান্ধী ও দলের অন্যান্য নেতানেত্রীরা।

আগামী দু'দিন ধরে ৫৪২ জন সাংসদ শপথ নেবেন। প্রথমে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে শপথগ্রহণ করেন অস্থায়ী স্পিকার বীরেন্দ্র কুমার। পরে তিনি সাংসদদের শপথগ্রহণে নেতৃত্ব দেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথগ্রহণের সময় 'মোদি, মোদি' ধ্বনি ওঠে। তখনই রিপাবলিকান পার্টি অব ইন্ডিয়ার সাংসদ রামদাস আটাওয়ালে উঠে দাঁড়িয়ে জানতে চান কোথায় রাহুল গান্ধী। বিরোধী বেঞ্চ থেকে আওয়াজ ওঠে, তিনি এখানেই আছেন এবং আসবেন।

কংগ্রেস এখনো সংসদ কক্ষে তাদের নেতার নাম ঘোষণা করেনি। দল আশা করছে, রাহুল গান্ধী লোকসভায় দলের দায়িত্ব নেবেন। কিন্তু রাহুলের কাছ থেকে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। তিনি সভাপতির পদ ছাড়ার সিদ্ধান্তে অনড়। দ্বিতীয় বারের জন্য বিরোধী নেতাও হতে পারছেন না তিনি।

স্মৃতি ইরানি, যিনি আমেঠীতে দ্বিতীয় বারের প্রচেষ্টায় রাহুলকে হারিয়েছেন, তিনিও আজ শপথ নেন। সেই সময় দীর্ঘ করতালিতে তিনি অভিনন্দিত হন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা