kalerkantho

সোমবার । ২২ জুলাই ২০১৯। ৭ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৮ জিলকদ ১৪৪০

সচিবালয়ে যেতে রাজি নন চিকিৎসকরা, পরিস্থিতি ঘোলাটে

অনিতা চৌধুরী, কলকাতা প্রতিনিধি   

১৫ জুন, ২০১৯ ১৬:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সচিবালয়ে যেতে রাজি নন চিকিৎসকরা, পরিস্থিতি ঘোলাটে

চিকিৎসকদের কর্মবিরতি ঘিরে অবস্থা আরো ঘোলাটে হলো ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। আলোচনার মাধ্যমে সমাধানসূত্র খোঁজার যে প্রস্তাব দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি, তা কার্যত ফেরালেন জুনিয়র চিকিৎসকরা। সেই সঙ্গে জানিয়ে দিলেন যে, তারা সচিবালয়ে বৈঠক করতে যাবেন না। 

শনিবার আন্দোলনরত চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রীকেই আলোচনা করার জন্য এনআরএসে আসতে হবে। 

তাদের দাবি, সোমবার এনআরএসে চিকিৎসকদের ওপর আক্রমণের পরেও রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে একের পর এক আক্রমণের ঘটনা ঘটে চলেছে, এতে তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। 

বিবৃতিতে তারা জানিয়েছেন, নবান্নের বন্ধ দরজার ভেতর জুনিয়র চিকিৎসকদের প্রতিনিধিদের নিয়ে যে বৈঠক করার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, তা তারা গ্রহণ করছেন না। তাই মুখ্যমন্ত্রীকেই এনআরএসে এসে তাদের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। আন্দোলনকারী জুনিয়র চিকিৎসকদের আবেদন, সাধারণ মানুষকে পরিষেবা দেওয়ার জন্য তারা উদ্যোগী, এ ব্যাপারে সরকার যেন দ্রুত পদক্ষেপ নেয়।

অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার এসএসকেএমে গিয়ে আন্দোলনরত জুনিয়র চিকিৎসকদের মধ্যে অনেক বহিরাগত আছেন বলে অভিযোগ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। যা নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেন রাজ্যের আন্দোলনকারী জুনিয়র চিকিৎসকরা। 

শনিবার আন্দোলনের রফাসূত্র বের করতে এনআরএসে গিয়ে আইএমএ-র সর্বভারতীয় সভাপতি শান্তনু সেনের অভিযোগ, কয়েকজন বহিরাগত আন্দোলনকারীদের ভুল পথে চালিত করার চেষ্টা করছে। আইএমএ-র সভাপতির এই মন্তব্যের পর আবারো পরিস্থিতি ঘোলাটে হয়ে ওঠে। শান্তনু সেনের মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করে ফের শুরু হয়ে যায় স্লোগান-বিক্ষোভ। এমতাবস্থায় মমতা কীভাবে এই পরিস্থিতির সামাল দেবেন, সেটাই দেখার বিষয়। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা