kalerkantho

শনিবার । ২০ আষাঢ় ১৪২৭। ৪ জুলাই ২০২০। ১২ জিলকদ  ১৪৪১

চাঁদা না পেয়ে লিঙ্গ পরিবর্তনকারী নারীকে অপহরণ, চুল কেটে দিল দুর্বৃত্তরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ জুন, ২০১৯ ১৯:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদা না পেয়ে লিঙ্গ পরিবর্তনকারী নারীকে অপহরণ, চুল কেটে দিল দুর্বৃত্তরা

লিঙ্গ পরিবর্তনের পর বিভিন্ন জায়গায় নেচে উপার্জিত টাকা দিয়ে সংসার চলে ২৭ বছর বয়সী শাকিলার। ঈদের প্রথম দিন চাঁদার দাবিতে তাকে অপহরণের পর একপর্যায়ে মাথার চুল কেটে দিয়েছে একটি চক্র। ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের মারদান এলাকায়। 

পুলিশের কাছে এ ব্যাপারে লিখিতভাবে অভিযোগও করেছেন শাকিলা। তার দাবি, এর আগে দু'বার তিনি ওই চক্রের হাতে টাকা দিয়েছেন। প্রথমবার ৪০ হাজার রুপি এবং পরের বার দিয়েছেন ৫০ হাজার রুপি। এবার ওই চক্র তার কাছে ১০ লাখ রুপি দাবি করে। 

শাকিলা বলেন, প্রথম দু'বার তাদের দাবি পূরণ করেছি এই ভেবে যে, তার পরেও যেন ওই এলাকায় আমি নাচতে পারি। কিন্তু তাদের চাহিদা এবার বেড়ে গেছে। ১০ লাখ রুপির দাবিতে আমাকে অপহরণ করে মাথার চুল পর্যন্ত কেটে ফেলেছে।

পাকিস্তানে লিঙ্গ পরিবর্তনকারীদের প্রধান ফারজানা জান বলেন, লিঙ্গ পরিবর্তন করা নারীদের একেবারে দুর্বল হিসেবে কল্পনা করা হয়। সে কারণে সহজ লক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছিল শাকিলা। সে কারনে ওই চক্র শাকিলার কাছে বিশাল অঙ্কের চাঁদা দাবি করে।

তিনি আরো বলেন, গত চার বছরে লিঙ্গ পরিবর্তনকারী ৬৪ জন নিহত হয়েছে এবং আরো অন্তত ছয় শতাধিক নির্যাতনের শিকার। দুর্বল ভেবে একটা চক্র লিঙ্গ পরিবর্তনকারীদেরই টার্গেট করছে। তারা কেবল এসব মানুষদের যৌন নির্যাতনই করছে না, তাদের কাছ থেকে অর্থও আদায় করছে।

শাকিলা বলেন, আমার কাছ থেকে যে পরিমাণ অর্থ দাবি করা হয়েছে, সেটা কোনোভাবেই আমি পূরণ করতে পারবো না। 

পাকিস্তানে সমকামিতা অবৈধ। তবে গত বছর সে দেশে আইন করা হয়, সরকারি নথিতে নিজেদের ইচ্ছামতো লিঙ্গ নির্ধারণ করা যাবে। খায়বার পাখতুংখাওয়া প্রদেশে লিঙ্গ পরিবর্তনকারীদের ওপর হামলার ঘটনা সবচেয়ে বেশি।

ফারজানা বলেন, বিভিন্ন চক্রের দাবি অনুসারে অনেকেই টাকা পরিশোধ করে। তবে চাহিদা অনুসারে টাকা পরিশোধ করতে না পেরে অনেকেই নির্যাতনে মারা পড়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা