kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

ভারতে দাবদাহে এক ট্রেনেই চারজনের মৃত্যু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ জুন, ২০১৯ ১৯:৩২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতে দাবদাহে এক ট্রেনেই চারজনের মৃত্যু

ভারতের আগ্রা থেকে কোয়েম্বাটোর যাওয়ার পথে ট্রেনে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। জানা গেছে, মৃত চারজনই কেরালার বাসিন্দা। সোমবার উত্তরপ্রদেশের ঝাঁসির কাছে ট্রেনে মধ্যেই মৃত্যু হয় তাদের।

ভারতীয় রেলের মুখপাত্র অজিত কুমার সিং জানান, খুবই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। ধারণা করা হচ্ছে, তীব্র দাবদাহের কারণে হিট স্ট্রোকেই মৃত্যু হয়েছে ওই চার জনের। ট্রেন ঝাঁসিতে ঢোকার সময়ই খবর আসে যে, একজন যাত্রী অজ্ঞান হয়ে গেছেন। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিশেষ মেডিক্যাল টিম। দেখা যায়, ততক্ষণে মারা গেছেন তিন ব্যক্তি। অচেতন ব্যক্তিকে নিয়ে আসা হয় হাসপাতালে। পরে সেখানে মৃত্যু হয় তার।

এ বছর ভারতের রাজস্থানে তাপমাত্রা বেড়ে ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁয়েছে। দিল্লির তাপমাত্রা ৪৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্কাইমেট দাবি করেছে, ইতিহাসে এই প্রথম রাজধানী শহরে তাপমাত্রা এত বেড়েছে। 

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে ভারত। সত্যিই অসহনীয় হয়ে উঠেছে সে দেশের বিভিন্ন স্থানের তাপমাত্রা। চলতি বছর নির্ধারিত সময়ের তুলনায় দেরিতে এসেছে বর্ষা। সব রাজ্যে এখনো বৃষ্টি শুরু হয়নি। কিন্তু তাপমাত্রা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। রাজস্থানের চুরুতে তাপমাত্রা পৌঁছেছিল ৫০.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। গত কয়েকদিনে ঝাঁসিতে তাপমাত্রা ঘোরাফেরা করছে ৪৫ ডিগ্রির আশেপাশে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এই তীব্র গরমই সহ্য করতে পারেননি ওই চার যাত্রী।

জানা গেছে, ট্রেনের কামরাতেও কোনো সমস্যা ছিল না। তবে যেহেতু তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকটাই বেশি ছিল, সে কারণে কেরালা এক্সপ্রেসের নন-এসি কামরাগুলো প্রচণ্ডা তাপে তেতে গিয়েছিল মারাত্মক ভাবে। সম্ভবত সেই গরমেই অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই চার যাত্রী। 

ওই কামরার অন্য যাত্রীরা জানিয়েছেন, আগ্রা পার হওয়ার পরেই অস্বাভাবিক হারে বাড়তে থাকে গরম। কেউ কিছু বোঝার আগেই মারা যান ওই তিন জন। বাকি যাত্রীরা ওই দলের আরেকজনকে কোনো সাহায্য করার আগেই তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে মৃত্যু হয় তার। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদের মধ্যে একজনের বয়স ৮১ বছর। বাকিদের পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা