kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

হিন্দু তরুণীর প্রচেষ্টায় প্রাণে বাঁচল মুসলিম পরিবার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ জুন, ২০১৯ ১৬:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হিন্দু তরুণীর প্রচেষ্টায় প্রাণে বাঁচল মুসলিম পরিবার

হামলার হাত থেকে বেঁচে যাওয়া এক মুসলিম তরুণীর সঙ্গে চৌহ্বান (বামে)

ভারতজুড়ে বেড়েই চলেছে জাতি আর সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ। হিন্দু-মুসলিম পরস্পরের শত্রু-এই ধারণাই গেঁথে দেওয়া হচ্ছে সবার মনে। রবিবার আলিগড়ে আড়াই বছরের এক শিশুকে খুন করা হয়। পরদিন এই ঘটনার জেরে একদল জনতা মারমুখী হয়ে তেড়ে আসে একটি মুসলিম পরিবারের দিকে। রড,ইঁট দিয়ে গাড়ির কাঁচ ভেঙে ফেলা হয়। মারের হাত থেকে রেহাই পায়নি শিশুরাও। তবে সেই গাড়িতে থাকা এক হিন্দু তরুণীর প্রচেষ্টায় মুসলিম পরিবারটি প্রাণে রক্ষা পেয়েছে। 

জানা গেছে, সোমবার একটি ভ্যানে হরিয়ানা থেকে আলিগড় আসছিলেন  সাফি মোহম্মদ আব্বাসির পরিবার। ভ্যানে মোট সাতজন ছিলেন। একটি পারিবারিক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন সকলেই। সেই গাড়িতেই ছিলেন পুজা চৌহ্বান নামের এক তরুণী। আক্রমণকারীরা ভেবেছিলেন,একদল মুসলিম রয়েছে ওই গাড়িতে। তাই তারা একটি বাইকে চড়ে ধাওয়া করে আব্বাসির পরিবারের দিকে। মাঝরাস্তায় তাদের গাড়ি থামিয়ে ভাঙচুর করা হয়। বাদ পড়েননি চালকও। বোরখা পরিহিত নারীদের দেখে তাদের সন্দেহ তীব্র হয়। কেড়ে নেওয়া হয় গাড়ির চাবি। শেষপর্যন্ত গাড়ির মধ্যে পুজাকে দেখে কিছুটা সুর নরম হয় তাদের। পুজার মধ্যস্থতায় সেই পরিস্থিতি থেকে রক্ষা পান তারা। 

এ বিষয়ে আব্বাসি জানান, পুজা তাদের মেয়ের মতো। ৩২ বছরেরও বেশি সময় ধরে পুজাদের পরিবারের সঙ্গে তাদের পরিচয়। পুজার চেষ্টাতেই তারা প্রাণে বেঁচে গেছেন। 

এদিকে আলিগড়ে স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন পুজা। 

আলিগড়ের পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, ওই এলাকায় পুলিশি টহলদারি বাড়ানো হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।


 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা