kalerkantho

রবিবার । ২১ জুলাই ২০১৯। ৬ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৭ জিলকদ ১৪৪০

‘বিপদ’ ধেয়ে আসছে মমতার বাংলায়- ঘুরে দাঁড়াতে চায় তৃণমূল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ মে, ২০১৯ ১৯:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘বিপদ’ ধেয়ে আসছে মমতার বাংলায়- ঘুরে দাঁড়াতে চায়  তৃণমূল

সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর পশ্চিমবঙ্গে বিপদ দেখছে তৃণমূল। ৪২ আসনের মাত্র ২২টিতে জয় পেয়েছে দলটি। উত্তরবঙ্গে একটি  আসনেও জয় আসেনি। এই অবস্থায় অভিমান করে দূরে সরে থাকা নেতাদের সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে দলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

সেই লক্ষ্যে কলকাতার সাবেক মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে ফোন করেন বর্তমান মেয়র ও তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিম।

ফিরহাদ ফোন করে শোভনকে বলেন, অভিমান সরিয়ে ফের দলে সক্রিয় হতে। দলবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা একসঙ্গে লড়াই করে সিপিএমকে হটিয়ে ছিলাম বাংলা থেকে। আরও এক বিপদ হাজির হয়েছে বাংলায়। তাই ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে একযোগে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

রবিবার বর্তমান ও সাবেক মেয়রের মধ্যে দীর্ঘ সময় ধরে ফোনালাপ চলে। তবে তাঁদের মধ্যে কী কথা হয়েছে, তা নিয়ে মুখ খুলতে চাননি কেউ। মেয়র ফিরহাদ হাকিম শুধু বলেন, তিনি ফোন করেছিলেন। তিনি শোভনকে অনুরোধ করেন অভিমান দূরে সরিয়ে দলে সক্রিয় হতে। তবে এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি শোভন চট্টোপাধ্যায়।

ফিরহাদ বলেন, দলের দুর্দিনে যাঁরা কাঁধে কাঁধ মিলে লড়াই করেছেন, তাঁদের অনেকে অভিমান করে দূরে চলে গেছেন। সবার কাছে তাঁর আবেদন, আর মুখ ফিরিয়ে থাকা নয়। এবার একসঙ্গে লড়াই করতে হবে। মোট কথা, মেয়রের কথায় স্পষ্ট গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ভুলে কাজ করতে হবে।

কলকাতার সাবেক মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ব্যক্তিগত জীবনে সমস্যার কারণে দলেও তাঁর গুরুত্ব কমে। তাঁকে মেয়র-মন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। এই অবস্থায় তিনি এখনও তৃণমূলের বিধায়ক ও কাউন্সিলর থাকলেও দলে তিনি গুরুত্বহীন। তবে দলের বিপদের দিনে ফের শোভনকে মনে করল তৃণমূল। তাঁকে ফেরার বার্তা দেওয়া হলো রাজনীতির মূলস্রোতে।

সূত্র : ওয়ান ইন্ডিয়া 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা