kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

মোদিকে যেভাবে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় বসাতে পারে তার জনপ্রিয়তার বার্তা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ মে, ২০১৯ ২২:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোদিকে যেভাবে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় বসাতে পারে তার জনপ্রিয়তার বার্তা

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের শেষ পর্যায়ে এসে বিভিন্ন জরিপের ফলে উঠে আসছে নরেন্দ্র মোদির বিজেপি ক্ষমতায় ফেরার আভাস। ২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে সাংবাদিকদের সামনে এসেও তেমন কোনো প্রশ্নের জবাব দেননি মোদি।

এ নিয়ে ক্ষোভ থাকলেও বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, মোদি আবারো ক্ষমতায় ফিরছেন। ওই দিন মোদির নিরবতা আরেকটি বিষয় প্রমাণ করে, সেটা হলো মোদির দৃঢ় মনোবল। তিনি মনে করেন, আবারো ক্ষমতায় ফিরবেনই। বুথ ফেরত জরিপের ফলেও মোদিকেই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ফেরার তথ্য দেওয়া হচ্ছে।

মোদির আমলে ভারত কতোটা এগিয়ে গেছে, সেটার চেয়ে বরং মোদি ক্ষমতায় আবারো ফেরার পর পরিস্থিতি কেমন হতে পারে তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে।

প্রথমবারের প্রধানমন্ত্রিত্বে মোদি সে দেশের এলিটদের কাছে নিজেকে অনেকটাই প্রতিষেধক হিসেবে বিক্রি করেছেন, মূলধারার গণমাধ্যমকে পাশ কাটিয়ে চলার চেষ্টা করেছেন এবং সরাসরি জনগণের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ব্যবহার করে। অন্য যে কারো চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তার কার্যক্রম চোখে পড়ার মতো।

সে দেশের একজন সাংবাদিক সিদ্ধার্থ ভারাদারাজন বলেন, তার শাসনে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলো দুর্বল থেকে দুর্বলতর হয়েছে। গণতন্ত্র বিপন্ন হওয়ার মুখে। আমরা এখন একনায়কতন্ত্রের দিকে এগোচ্ছি।

গত কয়েক বছরে দেখা গেছে, মোদি নিজেকে চৌকিদার ও চা-ওয়ালা হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন। এভাবে তিনি দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করেন। 

বিজেপির সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত বলেন, মোদি বহু মানুষকে নিজের দিকে অনুপ্রাণিত করেছেন। অনেকেই তাকে ঘৃণা করেন, আবার বেশিরভাগই তাকে পছন্দ করেন। 

এদিকে রাহুল গান্ধী বলেছেন, বুথ ফেরত জরিপ শতভাগ সত্য হয় না কখনো। বৃহস্পতিবার সম্ভবত বড় ধরনের কারচুপি শুরু হবে। অন্যদিকে বিজেপির সমর্থকরা জয় উদযাপনের জন্য অপেক্ষা করে বসে আছে।

মন্তব্য