kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

কনের কাজের মেয়েদের শ্লীলতাহানির চেষ্টা বরপক্ষের পুরুষদের, লোমহর্ষক ভিডিও

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ মে, ২০১৯ ১৬:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কনের কাজের মেয়েদের শ্লীলতাহানির চেষ্টা বরপক্ষের পুরুষদের, লোমহর্ষক ভিডিও

বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের কাজের মেয়েদের (ব্রাইডমেইড) শ্লীলতাহানির চেষ্টা করছে একদল পুরুষ

চীনে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের কাজের মেয়েদের (ব্রাইডমেইড) শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছে বরপক্ষের একদল পুরুষ। সম্প্রতি এ ধরনের একটি লোমহর্ষক ভিডিও ফুটেজ প্রকাশিত হয়েছে। 

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একদল লোক ওই মেয়েদেরকে জোরপূর্বক বিছানায় নিয়ে গিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করছে। এ ধরনের কাজ দেশটিতে বিয়ের অনুষ্ঠানের প্রচলিত প্রথার (হাজিং রিচুয়্যাল)অংশ হিসেবে করা হলেও চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে মনে করা হচ্ছে। 

ভিডিও দেখা যাচ্ছে, একদল পুরুষ কনের চারজন কাজের মেয়েকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করছে। ওই লোকগুলো মেয়েদেরকে জোর করে বিছানায় নিয়ে মুখ চেপে ধরেছে। অন্যদিকে কিছু লোক প্যান্ট খুলতে শুরু করেছে। 

সম্প্রতি চীনা সোশ্যাল মিডিয়াতে গুয়াংডং প্রদেশের বিয়ের অনুষ্ঠানে একই ধরনের 'হাজিং রিচুয়্যালের' তিনটি ভিডিও প্রচারিত হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, ছয়জন পুরুষ কনের তিনজন কাজের মেয়েকে টেনে ধরেছে। মেয়েগুলোর চিৎকার শোনা যাচ্ছে। লোকগুলোর হাত থেকে রক্ষা পেতে আপ্রাণ চেষ্টা করছে মেয়েরা। অন্যদিকে মেয়েগুলোর চারপাশ ঘিরে রেখে হাসাহাসি করছে লোকগুলো। 

এদিকে, স্থানীয় পুলিশের একজন মুখপাত্র গণমাধ্যম বেজিং টাইমসকে জানিয়েছেন, তারা ওই ঘটনার বিষয়ে অবহিত হয়েছেন। এ ঘটনার তদন্ত করা হবে। 

তবে ওই ঘটনায় সংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে এ বিষয়ে কোনো ধরনের দাপ্তরিক প্রতিবেদন বা অভিযোগ মেলেনি বলে জানান তিনি। 

জানা গেছে, এ ধরনের ঘটনা 'হাজিং রিচুয়্যাল'-এর অংশ যাকে 'নাওহুন' নামে অভিহিত করা হয়। এর মধ্য দিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া লোকেরা নিজেদের মধ্যে মজা করে থাকে। 

'নাওহুন'-অনুষ্ঠানের মধ্যে 'নববধূর মনকাড়া' অথবা 'বিয়ের গেইট ভাঙা' ইত্যাদি  বিষয়গুলো অর্ন্তভূক্ত। 

এ অনুষ্ঠানে বর এবং তার সঙ্গীরা বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক কাজের মাধ্যমে নববধূর মনকাড়ার চেষ্টা করে থাকে। 

তবে চীনে সাম্প্রতিক সময়ে এ ধরনের অনুষ্ঠান অনেকটাই সহিংস এবং অশ্লীল পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে জানা গেছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা