kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

গর্ভপাতের অধিকার চাই- এক কণ্ঠে বললো দু’শ নারী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ মে, ২০১৯ ১৮:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গর্ভপাতের অধিকার চাই- এক কণ্ঠে বললো দু’শ নারী

মার্কিন সমাজ ও রাজনীতি সব সময় উত্তপ্ত গর্ভপাত নিয়ে। দেশটির দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্য আলাবামার আইনপ্রণেতারা রাজ্যটিতে গর্ভপাত নিষিদ্ধ করার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছেন। তবে গর্ভপাত নিষিদ্ধের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থানে দেখা গেছে অঙ্গরাজ্যটির অনেককেই। আলাবামাসহ গোটা দেশের নারীদের জন্য অভিশাপ’ বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে এই আইনকে।

এই আইনের প্রতিবাদে সরব অঙ্গরাজ্যটির প্রধান সংবাদপত্রগুলোও। নরীদের কণ্ঠস্বরকে সম্মান জানিয়ে স্থানীয় সময় শনিবারের সম্পূর্ণ সংস্করণে গর্ভপাতের অধিকারের পক্ষে তাঁদের দু’শ লেখা ছাপিয়েছে সংবাদপত্রগুলো।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়, দেশটির আলবামা গ্রুপের তিনটি সংবাদপত্রে দু’শ নারীর ওই লেখাগুলো ছাপায়। শনিবারের সংস্করণে ছাপানো হয় তাঁদের লেখা। দ্য ব্রামিংহাম নিউজ, হান্টসভিলি টাইমস এবং মোবাইল প্রেস রেজিস্টার তাঁদের লেখাগুলো ছাপায়। তাঁদের ওই লেখাগুলো আবার আলবামা গ্রুপের ওয়েবসাইটেও প্রকাশ করা হয়। ওই লেখাগুলো শিরোনাম দেওয়া হয় ‘আলাবামা উইমেন স্পোক আউট’।

সিনেটে গত সপ্তাহে এই আইনটি পাস হয়। ধর্ষণ বা নিকট আত্মীয়ের মধ্যে যৌন সম্পর্কের মাধ্যমে গর্ভবতী হলেও গর্ভপাত করা যাবে না বলে এই আইনে বলা হয়। সিনেটে গর্ভপাতের পক্ষে ভোট পড়েছে মাত্র চারটি। অন্যদিকে গর্ভপাতের বিপক্ষে ২৫টি ভোট পেয়ে বিপুল ব্যবধানে পাস হয় আইনটি। 

আলাবামা গ্রুপের ভাইস-চেয়ারম্যান ক্যালি স্কট জানান, গত সপ্তাহেই গর্ভপাত নিষিদ্ধ করে আইন পাস হয়েছে। তাই আলাবামায় এই বিষয়টি ছিলো সবচেয়ে বেশি আলোচিত। কিন্তু অঙ্গরাজ্যটির নারীদের কথাগুলো শুনতে আমার ভুলে গিয়েছিলাম। অঙ্গরাজ্যের মায়েরা এই আইনের ব্যাপারে বুঝতে শুরু করেছেন।

ক্যালি আরো জানান, তাঁদের প্রতিবাদকে উপেক্ষা করা উচিত নয়। 

সূত্র: হাফপোস্ট

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা