kalerkantho

সোমবার । ২৪ জুন ২০১৯। ১০ আষাঢ় ১৪২৬। ২০ শাওয়াল ১৪৪০

এই এক্সিট পোল আমি বিশ্বাস করি না : মমতা

অনিতা চৌধুরী, কলকাতা প্রতিনিধি   

১৯ মে, ২০১৯ ২২:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এই এক্সিট পোল আমি বিশ্বাস করি না : মমতা

ভারতে শেষ দফার ভোটগ্রহণ শেষ হতেই শুরু হয়ে গেছে বুথ ফেরত সমীক্ষার ফল প্রকাশ। সমীক্ষা করে ফল প্রকাশ করেছে এবিপি-এসি নিয়েলসেন, রিপাবলিক টিভি, টাইমস নাও গণমাধ্যম। 

বুথ ফেরত সমীক্ষার ফল প্রকাশ শুরু হতেই নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে টুইট করে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেন, আমি এই এক্সিট পোল বিশ্বাস করি না। এটা একটা চক্রান্ত, যার মাধ্যমে হাজার হাজার ইভিএম মেশিনে কারচুপি করার কিংবা ইভিএম মেশিনকে বদল করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। আমি সব বিরোধী দলগুলোর কাছে আবেদন করছি, যাতে সবাই একজোট থাকে, শক্ত থাকে। আমরা এক সঙ্গে এই লড়াই লড়ব।

এবিপি-এসি নিয়েলসেনের সমীক্ষাতে দেখা যাচ্ছে, বিজেপি জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলেও অনেকটা এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস জোটের থেকে। অন্যদিকে রিপাবলিক টিভির সমীক্ষাতে দেখা যাচ্ছে সহজেই ফের সরকার গঠন করতে চলেছে এনডিএ জোট। টাইমস নাও-ভিএমআর এর বুথ ফেরত সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে প্রায় একই ছবি।

এই সমীক্ষা অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল পেতে পারে ২৮টি আসন, বিজেপি পেতে পারে ১১টি আসন, কংগ্রেস পেতে পারে দু'টি আসন ও অন্যান্যরা পেতে পারে একটি আসন। রিপাবলিক টিভির সমীক্ষাতেও এই রাজ্যে তৃণমূল পেতে পারে ২৯টি আসন, বিজেপি পেতে পারে ১১টি আসন ও কংগ্রেস পেতে পারে দু'টি আসন।

বুথ ফেরত সমীক্ষার ব্যাপারে একটা কথা পরিষ্কার জানিয়ে রাখা ভালো। তা হলো, এ ধরনের সমীক্ষায় সব সময় যে সঠিক ফলাফল আন্দাজ করা যায় তা নয়। বুথ ফেরত সমীক্ষার সঙ্গে প্রকৃত ফলাফল মেলেনি এমন অনেক উদাহরণ রয়েছে। তবে সমীক্ষা মিলতেও দেখা গেছে বেশ কয়েকবার। 

বিশেষজ্ঞদের মতে, বুথ ফেরত সমীক্ষা থেকে ভোট শতাংশের যে ইঙ্গিত পাওয়া যায়, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তা থেকে মোটামুটিভাবে একটা ট্রেন্ড বোঝা যায়। কিন্তু ভোট শতাংশ থেকে প্রকৃত সংখ্যা নির্ধারণ করার প্রক্রিয়া ত্রুটিমুক্ত নয়।

মন্তব্য