kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

বিজেপিকে হটাতে জোট গঠনের ইঙ্গিত ভারতের বিরোধী দলগুলোর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মে, ২০১৯ ১৮:২৫ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বিজেপিকে হটাতে জোট গঠনের ইঙ্গিত ভারতের বিরোধী দলগুলোর

লোকসভা নির্বাচন শেষ হওয়ার আগেই বিজেপি বিরোধী জোট গঠনের ইঙ্গিত দিয়েছে ভারতের বিরোধী দলগুলো। জোট গঠনের বিষয়ে আলোচনার লক্ষে শনিবার কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী, ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টির প্রধান শারদ পাওয়ারসহ বিরোধী নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠক করেছেন অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ও তেলেগু দেসাম পার্টির প্রধান চন্দ্রবাবু নাইড়ু।

নাইডু এ ব্যাপারে কংগ্রেস সভাপতির সঙ্গে বৈঠকের আগে কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিআই) দুই শীর্ষনেতা সুধাকর রেড্ডি ও ডি রাজার সঙ্গে দেখা করেন। এরপর এনসিপি দলের প্রধান শারদ পাওয়ার ও এলজেডি নেতা শারদ যাদবের কাছে যাওয়ার কথা তার। লখনউয়ে তিনি বিএসপি ও সমাজবাদী পার্টির মায়াবতী ও অখিলেশ যাদবের সঙ্গেও কথা বলতে যাবেন।

প্রসঙ্গত, ২৩ মে ভোটের ফল বেরুনোর দিনই ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধী বিরোধী দলগুলির নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন। তার আগেই রাহুল-চন্দ্রবাবু বৈঠকে বসলেন।

রাহুলের সঙ্গে ঘন্টা খানেকের বৈঠকে ২৩ মে লোকসভা ভোটের ফল বেরুনোর পর সব বিজেপি বিরোধী দলকে এক মঞ্চে নিয়ে আসার আশু প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করেন চন্দ্রবাবু। তিনি রাহুলকে প্রয়োজনীয় আসন না থাকলেও বিজেপি সরকার গঠনের দাবি পেশ করলে তার মোকাবিলায় কৌশল তৈরি করে রাখার কথা বলেছেন। এ ব্যাপারে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেও তাঁর ফোনে যোগাযোগ রয়েছে।

শুক্রবার চন্দ্রবাবু বলেন, শুধু তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি (টিআরএস) নয়, বিজেপি বিরোধী যে কোনও দলকেই ভোটের ফল প্রকাশের পর প্রস্তাবিত মহাজোটে আমন্ত্রণ জানানো হবে। তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও তাঁর কট্টর রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী বলে পরিচিত। কিন্তু বিজেপিকে ঠেকাতে সকল দ্বন্দ্ব ঝেড়ে ফেলতে রাজি থাকার ইঙ্গিত দিলেন তিনি।

গতকাল চন্দ্রবাবু নাইডু আমআদমি পার্টি আহ্বায়ক তথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিবালের সঙ্গেও কথা বলেন। দেখা করেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরির সঙ্গেও। কেজরিওয়ালের পক্ষ থেকে অবশ্য এটা ‘সৌজন্যমূলক’ সাক্ষাৎ বলে জানানো হয়েছে।

এদিকে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্ন এড়িয়ে যাওয়ায় রাহুলের পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ব্যঙ্গ করেছেন বিভিন্ন বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ।

লোকসভা নির্বাচনের শেষ দফা ভোটের ঠিক একদিন আগে শনিবার কেদারনাথ মন্দিরে প্রার্থনার মধ্য দিয়ে দু'দিনব্যাপী উত্তরাখণ্ড সফর শুরু করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সরকারি সফর হওয়ায় নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে অনুমতি দেয়া হওয়া হলেও নির্বাচনী আচরণ বিধি মেনে চলার বিষয়ে সতর্ক করা হয় তাকে।

এর আগে, শুক্রবার নয়াদিল্লিতে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে নিয়ে প্রথমবারের মতো সংবাদ সম্মেলন করেন নরেন্দ্র মোদি। প্রেস ব্রিফিংয়ে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে আবারো ক্ষমতায় আসার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি। তবে সাংবাদিকদের কোন প্রশ্নের উত্তর দেননি নরেন্দ্র মোদি। সেসব প্রশ্নের জবাব দেন অমিত শাহ।

সাংবাদিকদের প্রশ্ন এড়িয়ে যাওয়া ও নির্বাচন শেষ হওয়ার আগেই সংবাদ সম্মেলনে পূর্ণ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার দাবি করায় দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। টুইট বার্তায় মোদিকে ব্যঙ্গ করেন রাহুল গান্ধী বলেন, আগামীবার হয়তো অমিত শাহ তাকে কিছু প্রশ্নের উত্তর দেয়ার সুযোগ দেবেন।

বিজেপির এই সংবাদ সম্মেলনকে মোদির সঞ্চালনায় অল ইন্ডিয়া রেডিওতে প্রচারিত 'মান কি বাত' অনুষ্ঠানের শেষ পর্ব আখ্যা দেন সমাজবাদী পার্টি প্রধান অখিলেশ যাদব। আর এটিকে বিজেপির বিদায়ী সংবাদ সম্মেলন বলেন লোকতান্ত্রিক জনতা দলের প্রধান শারদ যাদব। পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকার পরও এতদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হতে না পারার জন্যও মোদির সমালোচনা করেন তিনি।

লোকসভা নির্বাচনের শেষ দফার ভোটের শেষ দিনের নির্বাচনী প্রচারণায় মোদিকে এক হাত নেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। উত্তর প্রদেশের মির্জাপুরে এক জনসভায় নরেন্দ্র মোদিকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় অভিনেতা আখ্যা দেন তিনি। বলেন, মোদির বদলে বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চনকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে দিলেই ভালো হতো। বলিউডের ক্লাসিক ছবি 'শোলে'তে জেলারের ভূমিকায় অভিনয় করা প্রবীণ অভিনেতা আশ্রাণীর সঙ্গেও মোদির তুলনা করেন প্রিয়াঙ্কা।

সাত ধাপের ম্যারাথন লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হচ্ছে আগামীকাল। দিল্লির মসনদে কে বসছে তা জানা যাবে আগামী ২৩ মে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা