kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

গোরক্ষদের গুলিতে মুসলমান নিহত, উত্তপ্ত জম্মু, কারফিউ জারি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ মে, ২০১৯ ২১:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গোরক্ষদের গুলিতে মুসলমান নিহত, উত্তপ্ত জম্মু, কারফিউ জারি

ভারত শাসিত জম্মু ও কাশ্মীরে এক মুসলমানকে হত্যা করেছে দেশটির তথাকথিত হিন্দু গোরক্ষকরা। আজ বৃহস্পতিবার (১৬ মে) ভোরে জম্মু ও কাশ্মীরের ভাদেরওয়া উপত্যকায় এ ঘটনা ঘটে। 

সহিংসতা এড়াতে জম্মু শহরে কারফিউ জারি করেছে প্রশাসন। 

ভারতীয় পুলিশ বলছে, আজ বৃহস্পতিবার তথাকথিত হিন্দু গোরক্ষকদের হাতে এক মুসলমান নিহত হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার ভোরে ভারত শাসিত কাশ্মীরের দূরবর্তী পাহাড়ি এলাকায় ঘোড়া পরিবহন করছিল একদল মুসলমান। এ সময় তাদের সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে কয়েকজন দুর্বৃত্ত। তারা নাঈম আহমেদ শাহ (৫০) নামের একজন মুসলমানকে গুলি করে হত্যা করে। গুলিতে তার সঙ্গে থাকা ইয়াসিন হোসেন নামের অপর একজন আহত হন।

আহত ইয়াসিন হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায় হামলাকারীরা।

ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন বলছে, বুধবার রাতে ভাদেরওয়া এলাকায় দু’জন মানুষকে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়। সেই সময়ে তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় একদল মানুষ। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান স্থানীয় বাসিন্দা নাঈম।

ভারত শাসিত কাশ্মীর পুলিশের মহাপরিদর্শক এম কে সিনহা এএফপিকে বলেন, 'এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতজনকে আটক করা হয়েছে। আমরা গোরক্ষার সঙ্গে এর সম্পর্কের বিষয়টি মাথায় রেখে তদন্ত করছি।' 

এদিকে, ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয়রা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। তারা বলেন, হিন্দু গোরক্ষকরা এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। বিক্ষুব্ধরা পুলিশের দিকে পাথর নিক্ষেপ এবং বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে। আটকদের তাদের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য পুলিশের কাছে দাবি জানান তারা।

এ সময় পুলিশ টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা চালায়। পরে  ওই এলাকায় কারফিউ জারি করা হয়। সহিংসতা ঠেকাতে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ-এর মতে, ২০১৫ সালের মে মাস থেকে গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত গরু নিয়ে হিন্দু গোরক্ষকদের দ্বারা সহিংসতায় ৪৪ জন নিহত হয়েছে।

সূত্র : ফ্রান্স টোয়েন্টিফোর, সংবাদ প্রতিদিন

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা