kalerkantho

নারী ফুটবল তারকা মেগান আর ট্রাম্পের আমেরিকায় জাতীয় সঙ্গীত গাইবেন না

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ মে, ২০১৯ ১৭:১২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারী ফুটবল তারকা মেগান আর ট্রাম্পের আমেরিকায় জাতীয় সঙ্গীত গাইবেন না

বর্ণবাদ ও পুলিশের নিষ্ঠুরতার বিরুদ্ধে নীরব প্রতিবাদে হাঁটু গেড়ে জাতীয় সংগীত গেয়েছিলেন মেগান

মার্কিন নারী ফুটবল তারকা মেগান রেপিনোয়ে জানিয়েছেন, তিনি সম্ভবত আর জাতীয় সংগীত গাইবেন না কিংবা এটা নিয়ে গর্বও করবেন না। সোমবার সংবাদমাধ্যম ইয়াহু স্পোর্টসকে দেওয়া একটি সাক্ষাতকারে তিনি এ কথা জানান। 

২০১১ সালে ফিফা বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচে কলম্বিয়ার বিরুদ্ধে ৩-০ গোলে জয়লাভের পর মেগান রেপিনোয়ে গর্বিতভাবে মাইক্রোফোনে গেয়েছিলেন, 'বর্ন ইন দ্য ইউএসএ' গানটি। এ গান গাওয়ার পর তিনি ব্যাপক সুখ্যাতি অর্জন করেন। 

 মেগান রেপিনোয়ে ষ্টার স্প্যাঙ্গলেটের ব্যানারে তিনি কেন গাইছেন না সে বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়েছেন। 

প্রসঙ্গত, ট্রাম্পের শাসনমলে দৃঢ়ভাবে দাঁড়িয়ে বুকে হাত রেখে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের নিয়ম চালু রয়েছে। 

তিনি বলেন, আমি সম্ভবত আমার বুকে হাত রেখে আর জাতীয় সংগীত গাইব না। 

মেগান বলেন, জাতীয় সংগীত গাইতে গিয়ে আমি বৈষম্য বা খারাপ অনুভূতি বোধ করছি। কারণ সাধারণ মানুষ (ট্রাম্প) প্রশাসনকে পছন্দ করে না। ট্রাম্প প্রশাসনের আচরণ ভীতিকর ও বিরক্তিকর। 

 তিনি মনে করেন, যুক্তরাষ্ট্রে  অনেকেই প্রান্তিক গোষ্ঠীতে পরিণত হয়েছে। 

২০১৬ সালে সাবেক এনএফএল কোয়ার্টারব্যাক কলিন কেপেরিকিকের সাথে একাত্মতা হয়ে প্রাক-গেমের অনুষ্ঠানে হাঁটু গেড়ে জাতীয় সংগীত গেয়েছিলেন তিনি। 

২০১৬ সালে সাবেক এনএফএল কোয়ার্টারব্যাক কলিন কেপেরিকিকের সাথে একাত্মতা হয়ে প্রাক-গেমের অনুষ্ঠানে হাঁটু গেড়ে জাতীয় সংগীত গেয়েছিলেন তিনি।  বর্ণবাদ ও পুলিশের নিষ্ঠুরতার বিরুদ্ধে  নীরব প্রতিবাদে জানাতে তারা ওই অঙ্গভঙ্গী করেছিলেন। 

কারণ, এর আগে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকেরা গুলি করে কালো-আমেরিকানদের বিরুদ্ধে হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে ওইভাবে হাঁটু গেড়ে জাতীয় সংগীত গেয়েছিলেন তারা। 

সূত্র : ডেইলি মেইল 

মন্তব্য