kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

সুইসাইড নোটে সন্তানদের যা বলে গেলেন পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্ট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুইসাইড নোটে সন্তানদের যা বলে গেলেন পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্ট

অ্যালান গার্সিয়া

গত বৃহস্পতিবার পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্ট অ্যালান গার্সিয়া মারা যান। ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে তদন্ত চলাকালে পুলিশ থাকে গ্রেপ্তার করতে যায়। এ সময় তিনি  নিজের মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে আত্মহত্যা করেন। আত্মহত্যা করার আগে তিনি সন্তানদের উদ্দেশে একটি সুইসাইড নোট লিখে রেখে যান। 

শুক্রবার তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানের সময় সুইসাইড নোটটি পাওয়া যায়। ৬৯ বছর বয়সী পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্ট অ্যালান গার্সিয়া তার ৬ সন্তানের উদ্দেশে একটি সুইসাইড নোট রেখে গেছেন। 

তিনি এখানে সন্তানদের উদ্দেশে বলেছেন, আমি অন্যদের হাতকড়া পরা অবস্থায় তাদের দুর্ভোগ দেখেছি। কিন্তু অ্যালান গার্সিয়া এ ধরনের অবিচার বা 'সার্কাস' সহ্য করবে না।

অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় তার মেয়ে লুসিয়ানা এটা পড়ে শোনান। 

গার্সিয়া লিখেছেন, সন্তানদের কাছে আমি আমার সিদ্ধান্তের মর্যাদা রেখে যাচ্ছি। আমার সহকর্মীদের প্রতি আমার গর্বের নিশানা রেখে গেলাম। আমার বিরুদ্ধবাদীদের জন্য অবজ্ঞার চিহ্ন হিসেবে দেহ রেখে গেলাম। কারণ আমাকে যে 'মিশন' দেওয়া হয়েছিল তা আমি ইতোমধ্যে পূরণ করেছি। 

তিনি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন যে, তারা 'অপমান' ও হয়রানি করতে তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্তকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেছিল।

এরপর তিনি সুইসাইড নোটে লিখেন, অন্যরা নিজেদের বিক্রি করে; কিন্তু আমি সে রকম নই। 

এদিকে, ইতিহাসবিদ আরপিপি রেডিও জানিয়েছেন, অ্যালান গার্সিয়া সুইসাইড নোটে নিজেকে অপরাধের শিকার বলে অভিহিত করেছেন। তিনি তার অবস্থার জন্য বিরুদ্ধপক্ষকে দায়ী করেছেন। তিনি তার দলের জন্য নিজেকে বিসর্জন দিয়েছেন বলে উল্লেখ করেছেন ওই নোটে। 

প্রসঙ্গত, অ্যালান গার্সিয়া  ১৯৮৫ সাল থেকে ১৯৯০ সাল এবং ২০০৬ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত পেরুর প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন। 

আরো পড়ুন : গ্রেপ্তারকালে পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্টের আত্মহত্যা


সূত্র : এএফপি 

মন্তব্য