kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

‘মধ্যপ্রাচ্য কৌশলগত জোট’ গঠন করছে যুক্তরাষ্ট্র

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মার্চ, ২০১৯ ১৯:৪৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘মধ্যপ্রাচ্য কৌশলগত জোট’ গঠন করছে যুক্তরাষ্ট্র

মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের ক্রমবর্ধমান প্রভাবের বিরুদ্ধে পারস্য উপসাগরীয় রাষ্ট্রগুলোকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। এছাড়া, ইয়েমেন যুদ্ধ নিরসন, অভিবাসন সঙ্কট সমাধান এবং মৌলবাদ ও ইসলামি সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় 'মধ্যপ্রাচ্য কৌশলগত জোট' গঠনে যুক্তরাষ্ট্র কাজ করছে বলেও জানান তিনি। এদিকে, ইরানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে কোনো সীমাবদ্ধতা নেই বলে মন্তব্য করেছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী। এরমধ্যেই, মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনায় আঞ্চলিক স্বার্থ প্রাধান্য দিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে কুয়েত।

মধ্যপ্রাচ্য সফরের অংশ হিসেবে বুধবার ইসরাইলে পৌঁছান মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, মধ্যপ্রাচ্য সংকট সমাধানে আঞ্চলিক জোট গঠনের প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করার বিষয়ে আলোচনা করেছেন তারা।

মাইক পম্পেও বলেন, প্রতিবেশী একটি রাষ্ট্রকে ধ্বংসের জন্য সন্ত্রাস-সংঘাতে সহযোগিতা এবং পরমাণু অস্ত্রকে বেছে নিচ্ছে ইরান। তাদের এ পরিকল্পনা সফল হবে না। কারণ ইসরাইলকে রক্ষায় সমানতালে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র। ইসরাইলের নিরাপত্তায় প্রতিবছর ৩শ' ৮০ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা দিচ্ছে ওয়াশিংটন। প্রয়োজনে এ অঞ্চলে থাড মোতায়েনের পরিকল্পনা আছে আমাদের।

ইরানের হুমকি মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে একযোগে কাজ করছেন বলে জানান ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী। এসময় আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় ইরানের ওপর আরো চাপ প্রয়োগের আহ্বান জানান তিনি।

বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, ইরানি আগ্রাসন মোকাবিলায় সর্বোচ্চ সহযোগিতা অব্যাহত রাখায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে সিরিয়ায় ইরানের সামরিক অনুপ্রবেশ প্রতিহত করতে চাই আমরা।

এরমধ্যেই, পশ্চিম তীরে গুলি চালিয়ে দুই নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী। তাদের দাবি, ওই দুই ফিলিস্তিনি ইসরাইলিদের লক্ষ্য কোরে পাথর নিক্ষপে করেছে। এছাড়া, গত শনিবার তিন ইসরাইলি হতাহতের ঘটনায় পশ্চিম তীরে ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়ে যাচ্ছে ইহুদি বাহিনী।

তারা বলেন, তারা বৃষ্টির মতো গুলি চালাচ্ছে। হুমকি দিচ্ছে- ঘর থেকে বের না হলে আমাদেরসহ ঘর গুঁড়িয়ে দেবে। তাদের হামলায় বেশ কয়েকজন হতাহত হয়েছে। অনেককে ধরে নিয়ে গেছে।

এর আগে, কুয়েত সফরে গিয়ে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস, আল কায়েদা এবং ইরানের হুমকি মোকাবিলায় উপসাগরীয় রাষ্ট্রগুলোকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। 

উপসাগরীয় রাষ্ট্রগুলোর মধ্যকার দ্বন্দ্ব নিরসনে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র কাজ করছে বলেও জানান তিনি। এসময়, কার্যকর মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানান কুয়েতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

শেখ সাবাহ আল খালেদ বলেন, মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনা বহুল প্রতিক্ষীত। আমরা বিশ্বাস করি- যুক্তরাষ্ট্র আঞ্চলিক পরিস্থিতি এবং সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর স্বার্থ বিবেচনায় নিয়ে শান্তি পরিকল্পনা প্রণয়ন করবে। এ বিষয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আমাদের আলোচনা হয়েছে।

ইসরাইল সফর শেষে লেবাননে যাওয়ার কথা রয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা