kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১              

কলকাতায় যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, অভিযোগের তীর স্ত্রীর দিকে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলকাতায় যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, অভিযোগের তীর স্ত্রীর দিকে

ভারতের কলকাতার মানিকতলার বাগমারি এলাকায়  এক যুবকের রহস্য মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। সোমবার সকালে সিলিং ফ্যান থেকে গলায় দড়ি দিয়ে রাজু দুয়ারি নামক এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

রাজুর পরিবারের অভিযোগ, তাকে হত্যা করে ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে। রাজুর স্ত্রী তানিয়া দুয়ারির দিকে অভিযোগের আঙুল তুলছেন তারা।

বছর পাঁচেক আগে তানিয়া নামে ওই তরুণীর সঙ্গে বিয়ে হয় রাজুর। তার পর থেকে বাগমারি এলাকায় ভাড়া থাকতেন ওই দম্পতি। রাজুর পরিবারের দাবি, ওই ভাড়াবাড়ি ঠিক করে দিয়েছিলেন তার শ্বশুরবাড়ির লোকজনই। 

প্রতিবেশিদের দাবি, বিভিন্ন কারণে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মাঝেমধ্যেই ঝামেলা হত। রবিবারও কোনো কারণে অশান্তি হয়। চিৎকার চেঁচামেচির আওয়াজ শুনতে পান তারা।

সোমবার সকালে তানিয়া তার বাপের বাড়ির লোকজনকে খবর দেন, রাজু আত্মহত্যা করেছেন। তারা এসে স্থানীয় বাসিন্দাদের বিষয়টি জানান। খবর দেয়া হয় পুলিশকেও। তারা এসে সিলিং ফ্যান থেকে রাজুর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে। একটি বেসরকারি অফিসে কাজ করতেন রাজু।

রাজুর পরিবার এবং তার প্রতিবেশীদের একাংশের অভিযোগ, তানিয়ার একাধিক বন্ধু ছিল। সেই সব পুরুষদের সঙ্গে প্রায়ই তিনি ফোনে কথা বলতেন। রাজু কাজে বেরিয়ে যাওয়ার পর, মাঝেমধ্যেই ওই ভাড়াবাড়িতেও অনেককে আসতে দেখা যেত। 

অভিযোগ উঠেছে, ঘরে মদের আসরও বসাতেন তানিয়া। তা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে অশান্তি লেগে থাকত। তানিয়ার অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন নিয়েই মূলত রাজুর সঙ্গে ঝামেলা হত বলে দাবি তাদের। রাজুর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য আরজি কর মেডিক্যাল কলেজে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ঠিক কী কারণে মৃত্যু, ঘটনার সময় তানিয়া কী করছিলেন তদন্তকারীদের কাছে তা এখনো স্পষ্ট হয়। রাজুর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তানিয়ার সঙ্গে কথা বলছে পুলিশ। 

যদিও পুলিশের কাছে তানিয়া জানিয়েছেন, এই ঘটনার সঙ্গে তিনি কোনোভাবেই জড়িত নন। তদন্তকারী এক কর্মকর্তা বলেন, এ ঘটনায় তানিয়াদেবীর কোনো ভূমিকা আছে কিনা বা রাজুকে কোনোভাবে আত্মহত্যায় প্ররোচণা দেয়া হয়েছিল কিনা, সেটাও আমরা খতিয়ে দেখছি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা