kalerkantho

সোমবার । ২১ অক্টোবর ২০১৯। ৫ কাতির্ক ১৪২৬। ২১ সফর ১৪৪১                       

সিরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে আইএসের দখলে থাকা সর্বশেষ এলাকা পুনরুদ্ধার

যুক্তরাষ্ট্রের হামলার পর সিরীয় উপকূলের ভূমধ্যসাগরে সামরিক মহড়া রাশিয়ার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ১৭:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে আইএসের দখলে থাকা সর্বশেষ এলাকা পুনরুদ্ধার

সিরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে জঙ্গীগোষ্ঠী আইএসের দখলে থাকা সবশেষ এলাকা পুনরুদ্ধার করেছে দেশটির সরকারি বাহিনী।

পর্যবেক্ষকদের বরাতে বার্তাসংস্থা এএফপি জানায়, দামেস্ক ও সুয়েদা প্রদেশের মধ্যবর্তী অঞ্চল থেকে আইএস সদস্যদের হটিয়ে পুনরায় সেখানকার নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে সিরীয় বাহিনী।

এদিকে, সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় নারী ও শিশুসহ অন্তত ৪৩ জন নিহত হয়েছে। এদের অধিকাংশই বেসামরিক নাগরিক বলে জানিয়েছে পর্যবেক্ষণ সংস্থা।

সিরিয়ায় সাত বছরের বেশি সময় ধরা চলা রক্তক্ষয়ী গৃহযুদ্ধের মধ্যেই জঙ্গীগোষ্ঠী আইএস নির্মূলে অভিযান চালিয়ে আসছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন কুর্দি-আরব বাহিনীসহ দেশটির সরকারি বাহিনী। এরই অংশ হিসেবে আইএস নিয়ন্ত্রিত দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় তুলতুল আল সাফা অঞ্চলে গত কয়েক মাস ধরে অভিযান চালায় সিরীয় বাহিনী। সরকারি বাহিনীর অভিযানের মুখে আইএস সদস্যরা শনিবার ওই এলাকা ছেড়ে পূর্বাঞ্চলীয় বাদিয়া মরুভূমির দিকে সরে যেতে বাধ্য হয়। এরমধ্য দিয়ে আইএসের দখলে থাকা সর্বশেষ ওই অঞ্চলটি আসাদ বাহিনী পুনরুদ্ধার করলো বলে জানিয়েছেন পর্যবেক্ষকরা।

আইএস যোদ্ধাদের পূর্বাঞ্চলের দিকে হটিয়ে দেয়ার পর সেখানেও অভিযান অব্যাহত রেখেছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন কুর্দি-আরব জোট। বিমান হামলায় একই পরিবারের ১৭ জন নিহত হওয়ার দুদিন পর শনিবার দেইর আল জোরের আল হুসেন গ্রামে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় নারী ও শিশুসহ অন্তত ৪৩ জন নিহত হয়। এদের অধিংকাংশই বেসামরিক নাগরিক বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক একটি পর্যবেক্ষণ সংস্থা। তবে সিরিয়ার মানবাধিকার বিষয়ক পর্যবেক্ষণ সংস্থার দাবি, নিহতদের মধ্যে অনেকেই আইএসের সঙ্গে জড়িত।

এরমধ্যেই, সিরিয়াসহ মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাব রোধে সিরীয় উপকূলের ভূমধ্যসাগরে সামরিক মহড়া করেছে রাশিয়া। মস্কোর অভিযোগ, সিরীয় বাহিনীর ওপর হামলার উদ্দেশ্যে যুক্তরাষ্ট্র মধ্যপ্রাচ্যে সামরিক শক্তি জোরদার করছে। সিরীয় বাহিনীর ওপর সম্ভাব্য যে কোন হামলা ঠেকাতে রাশিয়া প্রস্তুত বলেও জানায় দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম। যে কোন হামলা প্রতিহত করার প্রস্তুতির পাশাপাশি নিয়মিত মহড়ার অংশ হিসেবেও ভূমধ্যসাগরে ওই মহড়ার অনুষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা