kalerkantho

রবিবার । ৬ আষাঢ় ১৪২৮। ২০ জুন ২০২১। ৮ জিলকদ ১৪৪২

আইএসের 'কুনজরে' ইরাকি সুন্দরী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৫:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আইএসের 'কুনজরে' ইরাকি সুন্দরী

আইএসের, কুনজরে, ইরাক ,সুন্দরী

ভয়কে জয় করেছেন এক সবুজনয়না তরুণী। বোমা-বিস্ফোরণধ্বস্ত ইরাককে দিয়েছেন গ্ল্যামারের ছোঁয়া। স্বাভাবিকভাবেই তা ইরাকে সক্রিয় জঙ্গি সংগঠন আইএসের কুনজরে পড়বেই। হলোও তাই। চার দশক পর ইরাকের প্রথম বিউটি কুইন শায়মা কাসিম আবদেল রহমানকে হুমকি দিল আইএস। ফোন দিয়ে তাঁকে নাকি বলা হয়েছে, হয় আইএস-এ যোগ দাও, নাহলে অপহৃত হওয়ার জন্য তৈরি থাক। ঘটনার কথা স্বীকার করে শায়মা অবশ্য হুমকি ফুৎকারে উড়িয়েছেন। তাঁর কথায়, যত বাধাই আসুক আমি এগিয়ে যাবই।

গুলির আওয়াজেই যে দেশের সকাল শুরু হয়, ৪৩ বছর পর গত শনিবার সে দেশে এক অন্য ছবি দেখা গিয়েছিল। রক্ত, খুন, সন্ত্রাস দেখে একঘেয়ে হয়ে যাওয়া চোখগুলোয় লেগেছিল গ্ল্যামারের ছটা। এক অন্য ইরাকের অলিখিত ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হয়ে গিয়েছিলেন শায়মা। ১৯৭২-এ শেষবারের মতো সৌন্দর্য প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল ইরাকে। এর চার দশক পর গত শনিবার ইরাকে বসেছিল সৌন্দর্য প্রতিযোগিতার আসর। সবাইকে পিছনে ফেলে দিয়ে সেখানেই বিচারকরা বেছে নেন সবুজনয়না শায়মা আবদেল রহমানকে।

এরপর কুয়েতের একটি সংবাদমাধ্যমে শায়মাকে আইএসের হুমকি ফোনের কথা প্রকাশিত হয়। সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে শায়মার ভবিষ্যৎ নিয়ে আশঙ্কিত নেটিজেনরা সোচ্চার হন। কিন্তু প্রতিক্রিয়ায় শায়মা আইএসকে কোনো আমলই দিতে চাননি। তাঁর কথায়, ইরাকি নারীদের যে সমাজে স্বকীয় অস্তিত্ব রয়েছে তা প্রমাণ করতে চাই। পুরুষের মতো নারীও যে সমানাধিকার তা প্রমাণ করতে চাই। আমার কাজ সম্পর্কে আমি আত্মবিশ্বাসী। জানি কোনো ভুল করছি না। তাই ভয় পাওয়ার প্রশ্নই নেই।



সাতদিনের সেরা