kalerkantho

সোমবার । ২০ জানুয়ারি ২০২০। ৬ মাঘ ১৪২৬। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

হাজার হাজার মাকড়সায় ছেয়ে গেছে আমেরিকার টেনেসি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ নভেম্বর, ২০১৫ ০২:৩৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হাজার হাজার মাকড়সায় ছেয়ে গেছে আমেরিকার টেনেসি

টেনিসি-র একটি শহরে মাকড়শা আতঙ্ক। মাঠজুড়ে মাকড়শার জাল। জাল থেকে বেরিয়ে আসছে হাজার হাজার মাকড়শা। আতঙ্কে স্থানীয় বাসিন্দারা।
ঝাঁকে ঝাঁকে মাকড়শা! ছুটে আসছে তির বেগে! ত্রাহি ত্রাহি রব শহরজুড়ে! হলিউডি ছবিতে এ দৃশ্য তো বহুবার দেখা গিয়েছে। সেলুলয়েডের এই আতঙ্কই এবার বাস্তবে!
এই ছবি আমেরিকার টেনিসি-র একটি ছোট্ট শহর নর্থ মেমফিস-এর! বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে ঘাসের উপর, সাদা রঙের কি যেন পড়ে রয়েছে! একঝলক দেখে মনে হতেই পারে, সদ্য নেমে আসা তুষার কণা! কিন্তু কাছে যেতেই চোখ কপালে! জমাট বাঁধা তুষার নয়! এ হল মাকড়শার জাল! প্রায় এক কিলোমিটার দীর্ঘ এই জালের নীচে লুকিয়ে হাজার হাজার মাকড়শা!
জালের গায়ে সামান্য টোকা দিলেই, বেরিয়ে আসছে পিলপিল করে! কখনও আবার হাওয়ার বেগে উড়ে যাচ্ছে জাল। দিক-বিদিকে ছড়িয়ে পড়ছে মাকড়শাদের দলবল।
মাকড়শার এই আচমকা উত্পাত ঘুম উড়িয়েছে শহরবাসীর! কয়েকবছর আগে হ্যারি পটার অ্যান্ড দ্য চেম্বার অফ সিক্রেট  ছবিতে দেখা গিয়েছিল এমন এক দৃশ্য!
মাকড়শারা আকারে অনেক ছোট হলেও, আজকাল মাঝেমধ্যেই এমন পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে নর্থ মেমফিসের বাসিন্দাদের।
বিছানায় মাকড়শা, চেয়ারে মাকড়শা, টেবিলে মাকড়শা। ঘরজুড়ে শুধুই মাকড়শা!
ওই শহরের এক বাসিন্দা ইদা মরিস জানিয়েছেন, গতকালই আমি আমার গাড়ি বারান্দায় ২০টি মাকড়সা দেখতে পাই। অপর এক বাসিন্দা দেবরা লেউইস জানিয়েছেন, ঠিক যেন কোনও ভূতুড়ে সিনেমা। ঘাসের ওপর সেগুলি প্রায় ১ কিমি জুড়ে জাল বুনেছে। মাকড়সা মারতে মারতেই দিনের বেশিরভাগ সময় কেটে যাচ্ছে তাঁদের। তিনি আরও বলেন, মাকড়সার কামড় বাচ্চাদের জন্যও ক্ষতিকারক। তাই স্প্রে করে বা একটা একটা করে সেগুলিকে মেরে ফেলা হচ্ছে। কিন্তু তাতেও কমছে না মাকড়সার তাণ্ডব।
এদিকে বিশেষজ্ঞদের মত, ঘরে মাকড়সার উতপাত নাকি ততটাও খারাপ নয়। কারণ, অনেক ক্ষতিকর পোকামাকড় খেয়ে ফেলে তারা। কিন্তু আট পা বিশিষ্ট এই এই প্রাণীটির অত্যাচারে অতিষ্ঠ সেখানকার বাসিন্দারা।
মেমফিসের এডিটর ইন চিফ টুইটারে শীঘ্র এবিষয়ে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের কাছে আর্জি জানিয়েছেন।
পরিস্থিতি এমন জায়গা পৌঁছেছে যে মাকড়শা নিধনে এবার প্রশাসনের দ্বারস্থ হতে হয়েছে আতঙ্কিত বাসিন্দাদের! বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাকড়শার এই উত্পাতে উদ্বেগের কোনও কারণ নেই! কিন্তু, আতঙ্কিত মন কি আর বিজ্ঞানের যুক্তি মানে! আর তাই স্পাইডার ম্যানের দেশের এখন স্পাইডারই আতঙ্ক!
তবে, মাকড়সার আক্রমণ এই প্রথম নয়। এর আগে গত মাসে ওহিও-র একটা আস্ত সেতু দখল করে নিয়েছিল কয়েকহাজার বাসিন্দা আমেরিকার মিসৌরিতে মাকড়সার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন এক সেনা পরিবার। - সূত্র : এবিপি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা