kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ কার্তিক ১৪২৭। ২০ অক্টোবর ২০২০। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বিমান বসুর বিস্ফোরক দাবি

শাহবাগ আন্দোলনের সময় ইমরান বাংলাদেশে গিয়েছিল বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য

সুব্রত আচার্য্য, কলকাতা   

৯ অক্টোবর, ২০১৪ ১৯:১২ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



শাহবাগ আন্দোলনের সময় ইমরান বাংলাদেশে গিয়েছিল বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য

শাহবাগ আন্দোলনের সময় বাংলাদেশে গিয়ে বিশৃঙ্খার তৈরির জন্য তৃণমূলের বর্তমান রাজ্যসভার বর্তমান সদস্য এবং  কলম পত্রিকার সাবেক সম্পাদক আহমেদ হাসান ইমরান বাংলাদেশে গিয়েছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বর্ষীয়ান সিপিএম নেতা বিমান বসু।
বিমান বসু ভাষায়, শাহবাগ আন্দোলনের সময় সেখানে অশান্তি করতে গিয়েছিলেন বর্তমান রাজ্য সভায় তৃণমূলের একজন সাংসদ। প্রতিবেশী বাংলাদেশের সঙ্গে বরাবরই আমাদের সম্পর্কভাল। সেটা খারাপ করতেই তৃণমূলের জন্ম। আসলে তৃণমূলে ভারতের শান্তির জন্য জন্ম হয়নি অশান্তির জন্য জন্ম হয়েছে তৃণমূলের।
প্রাক্তন কলম সম্পদক বর্তমান তৃণমূল সাংসদ ইমরানের বিরুদ্ধে এরআগেও একইভাবে কংগ্রেস, বিজেপির তরফ থেকেও একই অভিযোগ ছিল। এমন কি দুই দেশের শীর্ষস্থানীয় পত্রপত্রিকা গুলোও এই খবর প্রকাশিত হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে সাংবাদিক সম্মেলনে বর্ধমানে বিস্ফোরণ কাণ্ডে রাজ্য সরকারের গোয়েন্দা সংস্থা ব্যর্থতাকে দায়ি করেন বিমান বসু। সেখানে তিনি বাংলাদেশে শাহবাগ আন্দোলনের সময় তৃণমূলের সাংসদের যাওয়ার নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। বিমান বসু এদিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি দিয়ে বর্ধমান কাণ্ডের তদন্ত চেয়েছেন।    
যদিও একই দাবি তুলেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহাও। কংগ্রসের রাজ্য সভাপতি অধীর চৌধুরীও চান এনআইএ তদন্ত করুক এই ঘটনার।
যদিও এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রাজ্যের সিআইডিও। তবে এই তদন্ত প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলে বর্ধমানে বিস্ফোরণের সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করার অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূলের শীর্ষ নেতা ও শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, এনআইয়ের ব্যাপার নিয়ে জল ঘোলা করে লাভ নেই। সত্য উদঘাটন করবে রাজ্য পুলিশই।
গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সাংবাদিক সম্মেলন করে তিনি বলেছেন, বর্ধমান কাণ্ড নিয়ে বিজেপি সিপিএম এবং কংগ্রেস একসুরে কথা বলছে। এটা প্রমান করে তাদের মধ্যে রাজনৈতিক আতাঁত রয়েছে।
বিজেপির রাজ্যসভাপতি রাহুল সিনহা বলেছেন বর্ধমান কাণ্ড নিয়ে রাজ্য সরকারের মাথা খারাপ। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার কী অবস্থা এই ঘটনা সেটি প্রমান করছে। তার আরো দাবি, এই রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসই উগ্রপন্থিদের আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছে।
গত মঙ্গলবার বসিরহাটের হাসনাবাদ থানার পুলিশ সাদ্দাম হোসেন ও ফারুক হোসেন নামে যে দুজন বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারিকে গ্রেপ্তার করেছে তাদের জেরা করে মুর্শিদাবাদ নওদা শিমূলিয়া থেকে শেখ কওসার নামে এক ভারতীয় জাল নোটের কারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে হাসনাবাদ থানার পুলিশ। তাকে গতকাল বসিরহাটের আদালতে তোলা হলে ছয় দিনের পুলিশ রিমাণ্ড দিয়েছেন বিচারক। এদিকে বৃহস্পতিবার মহম্মদ জাহাঙ্গীর নামে এক ব্যাক্তিকে জামাত নেতা সন্দেহে উত্তর চব্বিশ পরগনার বনগাঁ পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।
একইভাবে গতকাল বৃহস্পতিবার বর্ধমানের রাষ্ট্রপতি দিদির বাড়ি কর্ণীহারের নিমড়া-দক্ষিণপাড়ায় সন্দেহজনক একটি বাড়ির সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। বর্ধমান পুলিশের একজন শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, ওই বাড়িটি বর্ধমানের বিস্ফোরণ কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত সৌববের শ্যালকের কাদেরের বাড়ি। ২ অক্টোবার খগড়গড়ে বিস্ফোরণের পরই ওই বাড়িটি বন্ধ করে চলে যায় কাদের। বাড়িটিতে জঙ্গি প্রশিক্ষণ করা হতো বলে পুলিশে অণুমান। যদিও এই ব্যাপারে পুলিশের পরিস্কার কোন ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি।
২ অক্টোবার বর্ধমানের খাগড়াগড়ে একটি বাড়িতে বিস্ফেরণের ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছে। নিহত শাকিল মোল্লা ও সোহাবান মণ্ডল দুজনই বাংলাদেশি নাগরিক বলে গোয়েন্দাদের দাবি। বর্ধমানে বসেই বাংলাদেশে বিভিন্ন নাশকতার ছক করে আসছিল এই জঙ্গি গ্রুপটি। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি। ঘটনার মূল ফেরার আব্দুল কৌসব। তাকে ধরার জন্য সিআইডি বিশেষ টিম তৈরি করেছে।
সারদা কাণ্ডে প্রতিদিন সম্পাদক ও শুভা প্রসন্নকে জেরা
সারদা কাণ্ডে এবার জেরার মুখে পড়তে হয়েছে প্রখ্যাত চিত্র শিল্পী শুভা প্রসন্নকে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সিজিও ব্লকে শুভা প্রসন্ন কে ডেকে আনা হয়। প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে সিবিআই জেরা করেন। এই চিত্র শিল্পীর বিরুদ্ধে সারদা গ্রুপের টাকা নিয়ে একটি গ্যালারি তৈরি সহ একটি টেলিভিশন চ্যানেল কেনার সময় তার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। সিবিআইকে লেখা ৯২ পৃষ্ঠার চিঠিতেও সারদার কর্ণধার সুদীপ্ত সেন শুভা প্রশন্নের নাম উল্লেখ করেছেন বলে জানা গিয়েছে। এদিকে এদিনও তৃণমূল ঘেষা সংবাদ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক সৃঞ্জয় বসুকে ডেকে নিয়ে জেরা করা হয়। এর আগে আরো দুবার তাকে জেরা করে সিবিআই। এদিকে তৃণমূল সাংসদ ও প্রাক্তন কলমপত্রিকার সম্পাদক আহমেদ হাসান ইমরানের মালিকানাধীন দেশকাল প্রকাশনী সংস্থার যাবতীয় হিসাব দেখাতে বলেছে সিবিআই। এই হিসাব নিয়ে প্রকাশনার সংস্থার তরফে এদিনই সিবিআইয়ের মুখোমুখি হন সংশ্লিষ্ট কর্মীরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা