kalerkantho

বুধবার । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৭  মে ২০২০। ৩ শাওয়াল ১৪৪১

সার্থক জীবন ছিল তাঁদের : তসলিমা নাসরিন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ মে, ২০২০ ১৭:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সার্থক জীবন ছিল তাঁদের : তসলিমা নাসরিন

কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে মারা গেছেন দুই বাংলার দুই কিংবদন্তি পুরুষ ড. আনিসুজ্জামান এবং দেবেশ রায়। তাদের মৃত্যুতে শোকাহত হয়ে পড়েছে দুই দেশ। দুজনেই অধ্যাপক, দুজনেই লেখক, দুজনেই বুদ্ধিজীবী, দুজনেই প্রতিবাদী। দুজনেই সমাজবাদ তথা সাম্যবাদে উদ্দীপ্ত। সোচ্চার ছিলেন ধর্মীয় গোঁড়ামির বিরুদ্ধে। এই দুই গুণী ব্যক্তিত্বের মৃত্যুতে নিজের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন প্রখ্যাত নারীবাদী লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজে তসলিমা লিখেছেন, দেশভাগের শিকার ছিলেন দুজনেই। আনিসুজ্জামানের জন্মস্থান বসিরহাট, পশ্চিমবংগ। দেবেশ রায়ের জন্ম পূর্ববংগের পাবনায়। দেবেশ রায়কে পূর্ববংগ ছেড়ে পশ্চিমবংগে আশ্রয় নিতে হয়েছিল। তিনি হিন্দু বলে। আনিসুজ্জামানকে পশ্চিমবংগ ছেড়ে পূর্ববংগে চলে যেতে হয়েছিল। তিনি মুসলমান বলে। দুজনই তাঁদের মুক্তচিন্তা, মননশীলতা,উদারনীতি, রাজনৈতিক আদর্শ, সর্বোপরি তাঁদের উপন্যাস এবং প্রবন্ধের জন্য শ্রদ্ধা, সম্মান, পুরস্কার প্রচুর পেয়েছেন।'

'প্রায় একই বয়সে দুজন দুই দেশ থেকে চিরকালের জন্য বিদেয় নিয়েছেন গতকাল। যথেষ্ট বয়স হয়েছিল। যা দেওয়ার ছিল, দিয়েছেন। সবচেয়ে বড় কথা, সার্থক জীবন ছিল তাঁদের। সে কারণে আমি তাঁদের মৃত্যুতে দুঃখ করছি না। আমি তাঁদের মৃত্যুতে দুঃখ করি, জীবনে যাঁদের সুখ স্বস্তি সহানুভূতি সমর্থন পাওয়ার কথা ছিল, কিন্তু পাননি। যাঁরা প্রতিভাবান হয়েও, মুক্তচিন্তক হয়েও, মননশীল হয়েও বঞ্চিত, লাঞ্ছিত, উপেক্ষিত, অপমানিত, অবহেলিত রয়ে গেছেন সারা জীবন। যাঁরা কেবল ঠকেছেন, কেবল দুঃখ পেয়েছেন, কেবল দুঃখই পেয়েছেন, তাঁদের জন্য আমি অশ্রুপাত করি।'

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা