kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

ওমর ফারুকের হাতজোড় করে ক্ষমা চাওয়ার ছবি ভাইরাল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ নভেম্বর, ২০১৯ ১৯:৩৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ওমর ফারুকের হাতজোড় করে ক্ষমা চাওয়ার ছবি ভাইরাল

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনে রাজশাহী জেলা সভাপতি ও তিনবারের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরীর হাতজোড় করে ক্ষমা চাওয়ার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) ঢাকার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের প্রধান কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে রাজশাহী ও আশপাশের জেলা আওয়ামী লীগের সভায় এ ঘটনা ঘটে। রাজশাহী ও আশপাশের জেলা সম্মেলন উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিমসহ কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন। ভাইরাল হওয়া ওই ছবিটিতে দেখা যায় মোহাম্মদ নাসিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় সদস্য রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনসহ নেতারা বসে আছেন। আর টেবিলের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী এমপি। তিনি হাতজোড় করে ক্ষমা চাইছেন। তার সামনে দাঁড়িয়ে আছেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

এই ছবিটি নিজের ফেসবুক পেজে আপলোড করেন রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম। ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তা ভাইরাল হয়। অনেকেই বিভিন্ন মন্তব্য করেন। তোলপাড় শুরু হয় রাজশাহীর রাজনৈতিক অঙ্গনেও।

একই বৈঠকের আরও একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। ওই ছবিতে হাতজোড় করা ওমর ফারুক চৌধুরী বেলা ২টা পর্যন্ত অ্যাডভোকেট আবদুস সালামের ব্যক্তিগত টাইমলাইনে ওই ছবিটি ভাসতে দেখা যায়। এর পর থেকে আর ছবিটি দেখা যাচ্ছে না। তিনি ফেসবুক থেকে ছবিটি ডিলিট করে দিলেও তার ‘স্ক্রিনশট’ এরই মধ্যে বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়েছে।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদের সঙ্গে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এটি অনেকটাই ওপেন সিক্রেট। জেলার এই দুই শীর্ষ নেতার মধ্যে কথা বলাবলি- এমনকি মুখ দেখাদেখি পর্যন্ত বন্ধ। তাই তাদের নিয়ে বসে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ।

ওই বৈঠকে রাজশাহী জেলা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়। ঘোষিত সময় অনুযায়ী আগামী ৩ ডিসেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ এবং ৪ ডিসেম্বর রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে এই সম্মেলন আয়োজনের জন্য সমন্বয়কের দায়িত্ব দেয়া হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা