kalerkantho

শুক্রবার । ২১ জুন ২০১৯। ৭ আষাঢ় ১৪২৬। ১৮ শাওয়াল ১৪৪০

জানা গেল তাদের নাম

বিশ্বের সর্ববৃহৎ মোবাইল সম্মেলনে পরিণত হয়েছে মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস। বার্সেলোনায় হয়ে যাওয়া প্রযুক্তির এ মিলনমেলায় একের পর এক এসেছে নতুন পণ্যের ঘোষণা। সেসবের খোঁজ রেখেছিলেন তুসিন আহম্মেদ

২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৭ মিনিটে



 জানা গেল তাদের নাম

 

ভাঁজেই চমক

মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে প্রযুক্তিবিশ্বকে চমকে দিয়েছে হুয়াওয়ে। চীনের প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতাপ্রতিষ্ঠানটি ফাইভজি নেটওয়ার্ক সমর্থিত ভাঁজযোগ্য (ফোল্ডেবল) স্মার্টফোন হুয়াওয়ে ‘মেট এক্স’ উন্মোচন করে।

ভাঁজ করা অবস্থায় স্মার্টফোনটির পর্দার আকার হবে ৬ দশমিক ৬ ইঞ্চি। ভাঁজ খোলা হলে ৮ ইঞ্চি পর্দার ট্যাবলেটের মতো দেখা যাবে। ৭ ন্যানোমিটারের চিপসেটের বেলং ৫০০০ ও ৪৫০০ এমএএইচের শক্তিশালী ব্যাটারি সুবিধা রয়েছে এতে। মেট এক্সের ব্যাটারি ৪৫০০ এমএএইচ। এর চার্জ সংরক্ষণে ব্যবহার করা হয়েছে এআই প্রযুক্তি। সুপারচার্জিংয়ের সাহায্যে মাত্র ৩০ মিনিটেই ৮৫ শতাংশ চার্জ করা যাবে।

ফোনটিতে রয়েছে ৪০, ১৬ ও ৮ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ, যা একই সঙ্গে রিয়াল ও সেলফি ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। ডিভাইসটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যানড্রয়েড ৯.০ পাই। প্রসেসর হিসেবে আছে হাইসিলিকন কিরিন ৯৮০। ডিভাইসটির মূল্য শুরু হয়েছে ২২৯৯ ইউরো থেকে।

 

ছয় ক্যামেরার মোবাইল

বহুল প্রতীক্ষিত নকিয়া ৯ পিওরভিউ ফোনের ঘোষণা দিল এইচএমডি গ্লোবাল। এই ফোনের বিশেষত্ব হচ্ছে ক্যামেরা। সব মিলিয়ে ফোনটিতে আছে ছয়টি ক্যামেরা। সামনে আছে একটি ২০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। পেছনে আছে এফ/১.২ অ্যাপারচারসহ ১২ মেগাপিক্সেলের পাঁচটি ক্যামেরা। এর মধ্যে দুটি ক্যামেরা দিয়ে রঙিন ছবি তোলা যাবে। বাকি তিনটি ক্যামেরা দিয়ে তোলা যাবে সাদাকালো ছবি। মজার ব্যাপার হলো, একটি ক্লিক করার সঙ্গে সঙ্গে পাঁচটি ক্যামেরাই ভিন্ন ভিন্ন এক্সপোজারে ছবি তুলবে। এরপর সব ছবি একটিতে পরিণত হবে। এতে করে ছবিতে থাকা সূক্ষ্ম সূক্ষ্ম জিনিসও স্পষ্টভাবে বোঝা যাবে।

এতে আছে ২কে ওএলইডি প্যানেলের ৫ দশমিক ৯৯ ইঞ্চির ডিসপ্লে। র‌্যাম থাকবে ৬ গিগাবাইট এবং স্টোরেজে থাকবে ১২৮ গিগাবাইট। ব্যাকআপ দিতে এতে রয়েছে ৩৩২০ এমএএইচ ব্যাটারি। প্রসেসরে থাকবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫। তবে এত সব ফিচারের ভিড়ে বাদ পড়েছে হেডফোন জ্যাক। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে এর দাম ধরা হয়েছে ৬৯৯ ডলার (৫৮ হাজার টাকা)।

 

সেই পুরনো রূপেই

এমডাব্লিউসিতে ‘ব্ল্যাকবেরি কিটু’ স্মার্টফোনের একটি লাল সংস্করণ উন্মোচন করেছে ব্ল্যাকবেরি। ৬ গিগাবাইট র‌্যামের এ হ্যান্ডসেটে ১২৮ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ তথ্য সংরক্ষণের সুবিধা মিলবে। ব্ল্যাকবেরি কিটু স্মার্টফোনের প্রথম সংস্করণে ৬৪ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ তথ্য সংরক্ষণের সুবিধা ছিল। উত্তর আমেরিকা, ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য ও এশিয়ার বাজারের জন্য ডিভাইসটির দাম ৭৭৯ ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে। উন্মোচনের দিনই ইউরোপে ডিভাইসটির প্রাক-ক্রয়াদেশ নিতে শুরু করেছে ব্ল্যাকবেরি।

 

আছে ফিচার ফোনও

চলতি বছর একের পর এক ফোল্ডেবল ফোন আনার ঘোষণা দিচ্ছে স্মার্টফোন নির্মাতা কম্পানিগুলো। তবে অত্যাধুনিক এসব ফোনের ভিড়ে ফিচার ফোনের চাহিদা যে একেবারেই ফুরিয়ে যায়নি, তার উত্কৃষ্ট উদাহরণ ‘নকিয়া ২১০’।

২ দশমিক ৪ ইঞ্চি কিউভিজিএ পর্দাসমৃদ্ধ ডিভাইসটিতে রয়েছে এফএম রেডিও সুবিধা। ব্যাকআপ সুবিধা দিতে রয়েছে ১০২০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে এস৩০+। যথারীতি এতে রয়েছে ফিজিক্যাল বাটন।

ছবি তোলার জন্য ডিভাইসটির পেছনে রয়েছে দশমিক ৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ও ফ্ল্যাশ। অভ্যন্তরীণ তথ্য সংরক্ষণের রয়েছে ১৬ মেগাবাইট মেমোরি।

প্লাস্টিক বডির ফোনটিতে চিপসেট হিসেবে রয়েছে মিডিয়াটেক এমটি৬২৬০এ। ফ্ল্যাশলাইট, কলরেকর্ড সুবিধাসহ ডিভাইসটিতে রয়েছে মাইক্রোইএসবি ২.০ চার্জিং সুবিধা।

ডিভাইসটিকে নকিয়া ১০৫-এর উন্নত সংস্করণ বললেও ভুল হবে না। ফিচার ফোনের পাশাপাশি মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে নকিয়া ৪.২, ৩.২ ও ১ প্লাস নামের স্মার্টফোন বাজারে আনার ঘোষণা দিয়েছে এইচএমডি গ্লোবাল।

নকিয়া ২০১ ফোনটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৫ মার্কিন ডলার বা তিন হাজার টাকা।

 

‘এ’ সিরিজের দুই ফোন

‘এ’ সিরিজের দুটি ফোনের ঘোষণা দিয়েছে স্যামসাং।

গ্যালাক্সি এ৩০ এবং এ৫০ নামে দুটি ফোনেই স্যামসাং ব্যবহার করেছে তাদের সুপার অ্যামোলেড ইনফিনিটি ইউ ডিসপ্লে।

এ৫০ ফোনে রয়েছে ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্রযুক্তি। বলা হচ্ছে, এটাই স্যামসাংয়ের প্রথম মিডরেঞ্জ স্মার্টফোন, যেখানে এ সুবিধা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ৬.৪ ইঞ্চি ডিসপ্লেটির রেজল্যুশন ১০৮০ বাই ২৩৪০। এ৩০তে অনুরূপ সব কিছু থাকলেও থাকছে না শুধু ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

এ৫০তে আছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ, যার মধ্যে ২৫ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, ৫ মেগাপিক্সেল ডেপথ ও ৮ মেগাপিক্সেলের আলট্রাওয়াইড সেন্সর। ফ্রন্ট ক্যামেরায় আছে ২৫ মেগাপিক্সেলের সেলফি শুটার। এ৩০তে পাবেন ডুয়াল ক্যামেরা, যার একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি এবং অন্যটি ৫ মেগাপিক্সেল আলট্রাওয়াইড সেন্সর।

এ৩০ আসবে ৩/৩২ এবং ৪/৬৪ গিগাবাইট সংস্করণে। আর এ৫০তে থাকবে ৪/৬৪ এবং ৬/১২৮ জিবি র‌্যাম/রম।

 

শাওমির প্রথম ফাইভজি ফোন

স্যামসাংয়ের পর এবার ফাইভজি ফোন আনার ঘোষণা দিল শাওমিও। ফোনটির নাম হবে ‘মি মিক্স ৩ ফাইভজি’।

মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসের এক প্রেস কনফারেন্সে ফোনটি উন্মোচনের ঘোষণা দেওয়া হয়। শাওমির প্রডাক্ট ম্যানেজমেন্টের ডিরেক্টর দোনোভান সাং বলেন, ‘গত অক্টোবরে উন্মোচিত মি মিক্স ৩-এর সব ফিচারের পাশাপাশি এতে থাকবে ফাইভজি ব্যবহারের সুবিধা।’

এর ডিসপ্লেতে কোনো পাঞ্চ হোল বা নচ নেই। বদলে আছে স্লাইডিং ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা, যার কারণে ফোনটির বডি টু স্ক্রিনের অনুপাত ৯৩ দশমিক ৪ শতাংশ রাখা সম্ভব হয়েছে। ফোনটিতে আছে ৬ দশমিক ৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে। সর্বমোট চারটি ক্যামেরা রয়েছে। পেছনে ১২ মেগাপিক্সেলের দুটি ক্যামেরা, সামনে ২৪ ও ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ফোনটিতে প্রসেসর হিসেবে থাকবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্রসেসর ও এক্স৫০ ফাইভজি মডেম।

ফোনটি বাজারে আসবে কালো ও নীল রঙে। এর দাম ধরা হয়েছে ৫৬ হাজার ৩৫৭ টাকা। বাজারে আসবে আগামী মে মাসে। তত দিনে ফাইভজি নেটওয়ার্ক চালু হয় কি না সেটাই এখন দেখার বিষয়।

বড় ডিসপ্লের লেনেভো ট্যাব

‘ট্যাব ভি৭’ নামের একটি ডিভাইস এনেছে লেনেভো।

ট্যাবলেট আকৃতির ডিভাইসটির ডিসপ্লে ৬ দশমিক ৯৫ ইঞ্চি। যার রেজল্যুশন ২১৬০ বাই ১০৮০ পিক্সেল। ডিভাইসটি ৩ ও ৪ গিগাবাইট র‌্যামের সংস্করণে পাওয়া যাবে। অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ হিসেবে ৩২ ও ৬৪ গিগাবাইট সংস্করণে পাওয়া যাবে এটি। এতে রয়েছে ডলবি অডিও সাউন্ড ও স্টোরিও স্পিকার সুবিধা। ফলে পাওয়া যাবে চমৎকার সাউন্ড। ছবি তোলার জন্য ডিভাইসটির পেছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ডিভাইসটির পেছনে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। নিরাপত্তার জন্য রয়েছে ২ডি ফেইস আনলক সুবিধা। ৫১৮০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারির এই ট্যাবটির বিক্রি শুরু হবে চলতি বছরের এপ্রিল থেকে। মূল্য হতে পারে ২৪২ মার্কিন ডলার (২৪ হাজার টাকা)।

মোবাইলে সিনেমার পর্দা

২১ : ৯ রেশিওর সিনেমাওয়াইড ডিসপ্লে ও এইচডিআর সমর্থিত এক্সপেরিয়া ১ স্মার্টফোন উন্মোচন করেছে সনি। ডিভাইসটি এক্সপেরিয়া এক্সজেড৩ স্মার্টফোনের পরবর্তী সংস্করণ হিসেবে আনা হয়েছে। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্রসেসরচালিত ৬ গিগাবাইট র‌্যামের এ স্মার্টফোনে অভ্যন্তরীণ তথ্য সংরক্ষণের জন্য রয়েছে ১২৮ গিগাবাইট, যা মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ৫১২ গিগাবাইট পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে। অ্যানড্রয়েড ৯ পাই-চালিত ডিভাইসটিতে সাড়ে ৬ ইঞ্চির ফোরকে এইচডিআর ওএলইডি সিনেমাওয়াইড ডিসপ্লে আছে। এটার দাম হতে পারে ১১১০ ডলার।

মন্তব্য