kalerkantho

রবিবার । ৯ মাঘ ১৪২৮। ২৩ জানুয়ারি ২০২২। ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

মুশফিকের সেই 'স্কুপ' শটে পাকিস্তানেরও কপাল পুড়েছে

অনলাইন ডেস্ক   

১২ নভেম্বর, ২০২১ ১৪:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুশফিকের সেই 'স্কুপ' শটে পাকিস্তানেরও কপাল পুড়েছে

এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের প্রাপ্তি শূন্য। যদি জোর করে প্রাপ্তি খুঁজতে চান, তাহলে ওমান আর পাপুয়া নিউগিনির মত দুর্বলতম দুটি দলের বিপক্ষে জয়। আসরে বারবার স্কুপ আর রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে আউট হয়েছেন মুশফিক। তবু তিনি স্কুপ খেলা ছাড়েননি।

বিজ্ঞাপন

আর এই স্কুপ শটেই গতকাল পাকিস্তানকে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় করেন অজি তারকা ম্যাথু ওয়েড। তবে শুধু এবার নয়, এর আগেও স্কুপ শটে কপাল পুড়েছে পাকিস্তানের।

২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দিকে নজর দেওয়া যাক। ফাইনালে মুখোমুখি ভারত আর পাকিস্তান। সেবার মিসবাহ উল হকের স্কুপ শট শেষ করে দিয়েছিল পাকিস্তানের বিশ্বকাপ জয়ের সম্ভাবনা। মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারত আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫ উইকেটে ১৫৭ রান করেছিল। শেষ ওভারে ১৩ রান দরকার ছিল পাকিস্তানের।  হাতে ছিল ১ উইকেট। ক্রিজে ছিলেন মিসবাহ ও মোহাম্মদ আসিফ। যোগিন্দর শর্মার প্রথম বলটি ওয়াইড হয়।

দ্বিতীয় বলে মিসবাহ রান নিতে পারেননি। তার পরের বলে ছক্কা মারেন। শেষ চার বলে ছক্কা রান দরকার ছিল পাকিস্তানের। সবাই ধরে নিয়েছিলেন, পাকিস্তানই প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হবে। যোগিন্দরের ফুল লেংথ বল শর্ট ফাইন লেগের উপর দিয়ে মিসবাহ স্কুপ খেলতে যান। ব্যটে-বলে একেবারেই হয়নি। বল সোজা চলে যায় শান্তাকুমারান শ্রীশান্তের হাতে। পাকিস্তান ৫ রানে হেরে যায়। বিশ্বকাপ জিতে যায় মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারত।

১৪ বছর পর গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে পাকিস্তানকে হারাতে শেষ দুই ওভারে ২২ রান দরকার ছিল অস্ট্রেলিয়ার। ১৯তম ওভারের তৃতীয় বলে ওয়েডের ক্যাচ ফেলেন হাসান আলি। শাহিন আফ্রিদির পরের বলটি ইয়র্কার লেংথের একটু আগে পড়লে ওয়েড শর্ট ফাইন লেগের উপর দিয়ে ছক্কা মারেন। পরের বলে মিড উইকেটের উপর দিয়ে ছক্কা মারেন ওয়েড। এরপর আরও একটি ইয়র্কার দিতে যান আফ্রিদি। ওয়েড এই বলটিও স্কুপ করে ছক্কা মারেন। এক ওভার বাকি থাকতে ৫ উইকেটে হেরে যায় পাকিস্তান।



সাতদিনের সেরা