kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

প্রস্তুতি ম্যাচে হয়নি রান উৎসব

২৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রস্তুতি ম্যাচে হয়নি রান উৎসব

চ্যাম্পিয়নস ট্রফি আর ইংল্যান্ড-পাকিস্তান সিরিজের অভিজ্ঞতা থেকে মনে হচ্ছিল রান উৎসবই হবে এবারের বিশ্বকাপে। ১০ অধিনায়কের সংবাদ সম্মেলনেও উঠে এসেছিল সেই প্রসঙ্গ। তাতে অ্যারন ফিঞ্চ রান উৎসবের প্রত্যাশা করলেও বিরাট কোহলি বলেছিলেন বিশ্বকাপের চাপে রানের স্রোতে ভাটা পড়বে। তবে ভারতীয় অধিনায়ক হয়তো ভাবেনওনি, পরদিন তাঁর দলকেই এই কথাটা প্রমাণ করার উদাহরণ হতে হবে!

হোক প্রস্তুতি ম্যাচ, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের ৩৯.২ ওভারে ১৭৯ রানে অল আউট হয়ে যাওয়াটাই প্রমাণ করছে, বোলিংটা ঠিকঠাক হলে রান উৎসব পণ্ড করাও সম্ভব। অন্যদিকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তুতি ম্যাচে শতরান স্টিভেন স্মিথের। সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়কের ব্যাট কথা বলল চেনা ভাষাতেই। ২০১৫ বিশ্বকাপে ফাইনালে হাফসেঞ্চুরি করে অপরাজিত ছিলেন স্মিথ। এরপর আরেকটি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচে যখন মাঠে নামছেন, তার আগে ঘটে গেছে অনেক কিছুই। বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে এক বছর নিষেধাজ্ঞা কাটিয়েছেন। শুনেছেন অনেক কটুকথা। কিন্তু ব্যাট হাতে ২২ গজে স্মিথ সেই আগের মানুষটাই। অস্ট্রেলিয়া করেছে ৯ উইকেটে ২৯৭ রান, স্মিথের অবদান তাতে ১১৬ রান। জবাবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ইংল্যান্ডে সংগ্রহ ৩০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৭৩ রান।

আগের দিন কোহলির সঙ্গে দেখা হ্যারি কেইনের। ইংল্যান্ডের ফুটবল দলের অধিনায়ক, রাশিয়া বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতা। কোহলি ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রানসংগ্রাহক হতে পারবেন কি না, সেটা সময়ই বলে দেবে; তবে গোড়াতে ভাগ্য তাঁর সঙ্গী নয়। ট্রেন্ট বোল্ট আর জিমি নিশামের বলে দেখলেন বিশ্বের সেরা ব্যাটিং লাইনআপের পতন। রোহিত শর্মা এবং শিখর ধাওয়ান, দুজনেই আউট ২ রান করে। কোহলি নিজে করেছেন ১৮। চারে নামা লোকেশ রাহুল ৬, মহেন্দ্র সিং ধোনি ১৭ আর দীনেশ কার্তিক ৪। হার্দিক পাণ্ডে ৩০ ও রবীন্দ্র জাদেজা ৫৪ রান না করলে লজ্জাটা আরো বাড়ত ভারতের। বোল্ট নিয়েছেন ৪ উইকেট, নিশাম ৩ উইকেট। ৩৯.২ ওভারে ভারত অল আউট ১৭৯ রানে। জবাবে কেন উইলিয়ামসন (৬৭) ও রস টেলরের (৭১) হাফসেঞ্চুরিতে ৬ উইকেটে জিতেছে নিউজিল্যান্ড।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা