kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

মুখোমুখি প্রতিদিন

শুরুর খারাপ অবস্থা এখন আর নেই

২৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শুরুর খারাপ অবস্থা এখন আর নেই

নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামের মাঠ নিয়ে অনেক প্রশ্ন আছে। লিগের শীর্ষ দলটি আজ এখানে মুখোমুখি হবে স্বাগতিক নোফেল স্পোর্টিংয়ের। এই ম্যাচের আগে নোফেলের সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন ভূঁইয়া ভেন্যু প্রসঙ্গে মুখোমুখি হয়েছেন কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : নোয়াখালীর মাঠ নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে। এই মাঠ নিয়ে অনেক প্রশ্ন...

সাখাওয়াত হোসেন ভূঁইয়া : সবাই প্রশ্ন তুলছে কিন্তু কেউ বাস্তবতাটা বুঝতে চেষ্টা করছে না। যে মাঠে হরদম ক্রিকেট হয় সেখানে আমি প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার ফুটবল লিগ আয়োজন করেছি, এ জন্য কেউ সাধুবাদ দিচ্ছে না আমাকে। বসুন্ধরা কিংসের নীলফামারী কিংবা সাইফ স্পোর্টিংয়ের ময়মনসিংহের ভেন্যুর সঙ্গে এটির তুলনা করা যাবে না। ওই দুটি ভেন্যুর পেছনে তারা অনেক টাকা-পয়সা খরচ করেছে, আমাদের সেই অর্থ নেই। সংস্কারের জন্য আমরা একটু সময় চেয়েছিলাম, বাফুফে সেটাও দেয়নি। তাদের গ্রাউন্ডসম্যানও নোয়াখালীতে এক দিন থেকে ফিরে গেছে।

প্রশ্ন : বাফুফে কি খেলার মাঠের বিষয়ে আন্তরিক নয়?

সাখাওয়াত : ফুটবলের মাঠ নিয়ে বাফুফের খুব চিন্তা থাকলে এত দিনে দেশে অনেক ভালো মানের ফুটবল মাঠ থাকত। দেখবেন, প্রতিটি বিভাগে আন্তর্জাতিক মানের ক্রিকেট স্টেডিয়াম দাঁড়িয়ে গেছে, কিন্তু বাফুফে তার খেলার জন্য কিছুই করতে পারেনি।

প্রশ্ন : যা-ই হোক, এই মাঠে ভালো ফুটবল খেলা তো অসম্ভব!

সাখাওয়াত : না। এটা আমি মানি না, এখানে পয়েন্ট খোয়ালেই প্রশ্ন ওঠে। জিতলে তো কেউ অভিযোগ করে না। আমি মানছি, লিগের শুরুর দিকে মাঠের অবস্থা খারাপ ছিল। তবে এখন আর সে অবস্থা নেই। আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি মাঠটিকে খেলার উপযোগী করতে। আশা করি, আজ বসুন্ধরা কিংসের সঙ্গে ম্যাচটিও ভালো হবে। এখানে খেলা হলে দর্শক হয়, এর সুবাদে স্টেডিয়ামের সংস্কার হলে আগামী মৌসুমে এটি ফুটবলের ভালো একটা ভেন্যু হবে।

প্রশ্ন : কিন্তু নোফেল স্পোর্টিং কি প্রিমিয়ারের টিকে থাকবে?

সাখাওয়াত : দলটিকে প্রিমিয়ারে রাখার জন্যই তো লড়াই করছি। আমরা খুব কষ্ট করে ক্লাব চালাই, এ দলের ভবিষ্যৎ এখন খেলোয়াড়দের হাতে।

মন্তব্য