kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

মুখোমুখি প্রতিদিন

আবাহনী-কিংস ম্যাচের দিকে তাকিয়ে সবাই

১৮ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আবাহনী-কিংস ম্যাচের দিকে তাকিয়ে সবাই

প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা লড়াইয়ে সবচেয়ে এগিয়ে বসুন্ধরা কিংস। এর পেছনে আছে আবাহনী ও শেখ রাসেল। এই অবস্থান থেকে রাসেল স্বপ্ন দেখে কি না, দলের সামর্থ্যই বা আগের চেয়ে কতখানি বেড়েছে—এসব নিয়েই শেখ রাসেল গোলরক্ষক আশরাফুল রানা মুখোমুখি হয়েছেন কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : পয়েন্টের দিক থেকে আবাহনীকে ছুঁয়ে ফেলেছে শেখ রাসেল। এখান থেকে কি শিরোপার স্বপ্ন দেখা যায়?

আশরাফুল রানা : অবশ্যই। যদিও আবাহনীর (৩৩ পয়েন্ট) এক ম্যাচ কম, আমরা গত দুটি ম্যাচে চমৎকার খেলেছি। আরামবাগের বিপক্ষে গোল খেয়ে শেষ মুহূর্তে দু-দুটি গোল করে শেখ রাসেল ম্যাচ জিতেছে। পরের ম্যাচেও বড় জয় পেয়েছি। আসলে দ্বিতীয় লেগে আমাদের খেলা অনেক ইতিবাচক হচ্ছে। দ্বিতীয় লেগে খেলোয়াড়দের চেষ্টা অনেক বেশি দেখছি আমি। সামনে অনেক ঘটন-অঘটন অপেক্ষা করছে সবার জন্য।

প্রশ্ন : কী রকম ঘটন-অঘটন?

রানা : বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে। এর মধ্যেই আমাদের খেলতে হবে। মাঠের অবস্থা খারাপ হলে শক্তিশালী দল নিয়েও আপনি কিছু করতে পারবেন না। এ সব কিছু মাথায় নিলে মনে হয়, লিগের অনেক কিছুই এখনো বাকি।

প্রশ্ন : তবে কালকের আবাহনী-বসুন্ধরা কিংসের ম্যাচের ওপর শিরোপার অঙ্কের অনেক কিছু নির্ভর করছে...

রানা : হ্যাঁ, এই ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকবে সবাই। ৪ পয়েন্ট এগিয়ে শীর্ষে থাকা কিংস এই ম্যাচ জিতলে শিরোপার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে তাদের। আবাহনী জিতলে কিংবা ড্র হলে শিরোপা-লড়াই জমজমাট রূপ নেবে। আমরাও ভালো জায়গায় থাকব।

প্রশ্ন : শেখ রাসেল শুধু একটি ম্যাচ হেরেছে নীলফামারীতে কিংসের কাছে। এবার কিংস খেলবে সিলেটে গিয়ে, যেখানে রাসেল ভালো মানিয়ে গেছে।

রানা : সিলেটের মাঠ ভালো, সেখানে আমরা ভালো খেলছি। মুক্তিযোদ্ধার সঙ্গে একটি ড্র ম্যাচ বাদ দিলে সবই জিতেছে শেখ রাসেল। আবাহনীর মতো শক্তিশালী দলকে হারিয়েছি আমরা। আমাদের দলের চেহারাও খানিকটা বদল হয়েছে দ্বিতীয় লেগে। ইউক্রেনের ফরোয়ার্ড ভ্যালেরি আসায় গোলের সংখ্যা বাড়বে বলে আমার বিশ্বাস। তাঁর টেকনিক চমৎকার, গোলের সামর্থ্যও ভালো। দলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হয়তো একটু সময় নিচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা