kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

তামিমের বিশ্বকাপ ভাবনা

২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তামিমের বিশ্বকাপ ভাবনা

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ের রেসিপিটা বহুদিন হলো গোপন নেই। নড়বড়ে টপ অর্ডারের ভালো-মন্দ নির্ভরশীল তামিম ইকবালের ওপর। বাকিরা যে সে রকম আস্থার জায়গা তৈরি করতে পারেননি! সেই তাঁরা মানে, লিটন কুমার দাশ কিংবা সৌম্য সরকার যদি ধুমধাড়াক্কা কিছু একটা করে দিতে পারেন, তাহলে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে যেকোনো প্রতিপক্ষের বিপক্ষে সমানে পাল্লা দেওয়া যাবে বলে বিশ্বাস বাংলাদেশ দলের অন্দরমহলের। টানা দুই সেঞ্চুরি, পরেরটি আবার প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে লিস্ট ‘এ’তে সৌম্য সরকারের ডাবল সেঞ্চুরি আশ্বস্ত করছে তামিমকেও, ‘এটা দারুণ একটা অর্জন। বিশ্বকাপ ভিন্ন কন্ডিশনে হবে। তবে যেখানেই রান করুক না কেন, এটা তাকে (সৌম্যকে) আত্মবিশ্বাস জোগাবে। ও যদি শেষ দুই ম্যাচে ১০ আর ৫ রান করে সফরে যেত তখন ওর মনে সামান্য হলেও চাপ থাকত। কিন্তু এখন ও জানে যে সে রান করেছে। জানে কিভাবে রান করেছে।’

রান সৌম্য আগেও করেছেন। তবে আর সবার মতো ফর্মহীনতা তাঁর আত্মবিশ্বাসও শুষে নিয়ে থাকবে, যা ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের শেষ দুটি ইনিংসে ফিরেও পাওয়ার কথা। তামিম নিজে অবশ্য এবারের প্রিমিয়ার লিগ থেকে নিজেকে দূরে রেখেছেন। লম্বা মৌসুমের মাঝখানে, বিশেষ করে বিশ্বকাপের আগে নিজেকে তরতাজা রাখতেই এ বিশ্রাম। অবশ্য এ বিশ্রাম শুয়ে-বসে কাটাননি তিনি। জিম, দৌড়াদৌড়ি, কঠোর ডায়েট আর নেটে অনুশীলন করে নিজেকে তৈরি রাখছেন তামিম, ‘আমি নিজে সন্তুষ্ট। ওই কন্ডিশনে (আয়ারল্যান্ড-ইংল্যান্ড) আমার মুখোমুখি হতে হবে এমন সব কিছু নিয়েই আমি কাজ করছি। আমি মনে করি প্রস্তুতিটা সব সময়ই আমার নিজের হাতে। এটা নিয়ে আমি যা ইচ্ছা তা করতে পারি। কষ্ট করে ভালোভাবে প্রস্তুতি নিতে পারি। মাঠে গিয়ে কী হবে না হবে, সেটা অনেক সময় আমার হাতে থাকে না। তবে ট্রেনিংয়ের দিক দিয়ে আমি সবই চেষ্টা করি।’ অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে ‘ক্ষীণকায়’ তামিম মনে করেন বিশ্বকাপের ম্যাচ প্রস্তুতি তাঁর আয়ারল্যান্ড সিরিজ দিয়েই হয়ে যাবে। এরপর মূল আসরের আগেও প্রস্তুতি ম্যাচ রয়েছে আরো দুটি। তবে এক সফরে এতগুলো ম্যাচ নিয়ে মৃদু দুশ্চিন্তা আছে তামিমের, ‘বিশ্বকাপে তো আর কাউকে বিশ্রাম দেওয়া যাবে না। তাই আমার মনে হয় আয়ারল্যান্ডে দু-একটা ম্যাচে একাদশ বদলে সবাইকে ফ্রেশ রাখা যেতে পারে।’

বিশ্বকাপ ইংল্যান্ডের মাটিতে হওয়ায় তামিমের কাছে প্রত্যাশা বেশি। অবশ্য সে প্রত্যাশার আগুনে ঘি ঢালতে নারাজ তিনি, ‘ইংল্যান্ডে আমি ভালো করেছি, এ জাতীয় কিছু আমি ভাবি না। এসব ভাবনা আমাকে কোনো সাহায্য করবে না। আমি জানি বিশ্বকাপে ভালো করা কঠিন হবে। সেটা আরো কঠিন হয়ে যাবে যদি আমি ইংল্যান্ডে আগের সাফল্য নিয়ে পড়ে থাকি। আমি ভালো করি কিংবা মন্দ, অতীত নিয়ে ভাবি না। আমি বর্তমান নিয়েই আছি। খুব ভালো করে জানি বিশ্বকাপে ভালো করতে হলে আমাকে অনেক কষ্ট করতে হবে, মাঠে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

মন্তব্য