kalerkantho

মুখোমুখি প্রতিদিন

গোল না বাড়ালে শিরোপা লড়াইয়ে থাকা কঠিন হবে

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গোল না বাড়ালে শিরোপা লড়াইয়ে থাকা কঠিন হবে

পয়েন্ট টেবিলের ৩ নম্বরে থেকে প্রিমিয়ার লিগের প্রথম পর্ব শেষ করেছে শেখ রাসেল। দ্বিতীয় স্থানে থাকা আবাহনীর চেয়ে পিছিয়ে তারা ৩ পয়েন্টে। দ্বিতীয় পর্বে শিরোপার লড়াই জমিয়ে তুলতে পারে দলটি। গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে ব্যাখ্যা করেছেন নিজেদের পারফরম্যান্স।

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : প্রথম পর্বের পারফরম্যান্স, লিগ টেবিলের অবস্থান নিয়ে কতটা সন্তুষ্ট?

আশরাফুল ইসলাম : পুরোপুরি সন্তুষ্ট না। কারণ আমাদের লক্ষ্য ছিল প্রথম পর্বে অন্তত ৩০ পয়েন্ট সংগ্রহ করার। সেখানে ২৭ পয়েন্টে শেষ করেছি আমরা। খুব একটা খারাপও বলা যাবে না এটাকে। আবাহনীর চেয়ে ৩ পয়েন্টে পিছিয়ে আছি, ৭ পয়েন্ট ব্যবধান বসুন্ধরা কিংসের সঙ্গে। দ্বিতীয় পর্বে অনেক কিছুই হতে পারে।

প্রশ্ন : প্রথম পর্বে হতাশার ম্যাচ ছিল কোনটি?

আশরাফুল : দুটি—মুক্তিযোদ্ধা এবং সাইফ স্পোর্টিংয়ের বিপক্ষে। দুটিতেই আমরা ড্র করেছি। সাইফের মাঠে অনেক ভালো খেলেও শুধু সুযোগ নষ্ট করে ম্যাচটি জিততে পারিনি। ৮৩ মিনিটে আত্মঘাতী গোল হজম করে ম্যাচটি ড্র করতে হয়েছে। ওদিকে মুক্তিযোদ্ধার কাছে পয়েন্ট হারিয়েছি আমরা সিলেটে। যেটি একেবারেই প্রত্যাশিত ছিল না। হোম ভেন্যুতে অন্তত কোনো পয়েন্ট হারাতে চাইনি আমরা, তবে সেই ম্যাচটিতে সত্যিই আমরা খারাপ করেছি।

প্রশ্ন : গোলের সুযোগ নষ্টের কথা বলছিলেন, প্রথম পর্ব শেষে এটাই কি ঘাটতির জায়গা?

আশরাফুল : হ্যাঁ, স্কোরিংয়ের সমস্যায় আমরা ভুগেছি। ১২ ম্যাচে আমরা গোল হজম করেছি মাত্র ৪টি। কিন্তু সেভাবে গোল করতে পারিনি, ১৬ গোল করেছি মাত্র। যেখানে বসুন্ধরা, আবাহনী ২৬-২৭টি করে গোল করেছে। গোল হজম করলেও ওদের দুশ্চিন্তায় পড়তে হয় না, কারণ গোল করে সেই ম্যাচ বের করে আনার সক্ষমতা ওদের আছে। তো আমাদের তো ভাবতে হবেই।

প্রশ্ন : চতুর্থ স্থানে থাকা সাইফ স্পোর্টিং এরই মধ্যে নতুন খেলোয়াড় দলে ভিড়িয়েছে, আপনারাও তাহলে ফরোয়ার্ড লাইনে পরিবর্তন আনছেন?

আশরাফুল : এটা পুরোপুরি ম্যানেজমেন্টের ব্যাপার। এখনো কাউকে আনা হয়নি বলেই জানি। তবে আনাটাই যুক্তিযুক্ত হবে মনে হচ্ছে। স্কোরিং বাড়াতে না পারলে শিরোপা লড়াইয়ে থাকাটা কঠিন হবে

মন্তব্য