kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

বললেন সরফরাজ

ফেভারিট হলেই পাকিস্তানের সমস্যা

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফেভারিট হলেই পাকিস্তানের সমস্যা

আইসিসির সব শেষ বৈশ্বিক টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান। ফেভারিট ভারতকে ফাইনালে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনাল জিতেছিল সরফরাজ আহমেদের দল। সেই পাকিস্তানকে বিশ্বকাপে গোনায় ধরছে না কেউ। মন খারাপই হওয়ার কথা সরফরাজ আহমেদের। কিন্তু উল্টো খুশি তিনি! কারণ ফেভারিট হলে যে চাপ থাকে, এবার পাকিস্তানের সেটা নেই। বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে যাওয়ার আগে গতকাল সরফরাজ জানালেন, ‘দেখুন, যখন আমরা ফেভারিট থাকি তখনই সমস্যা হয়। কিন্তু আমরা আন্ডারডগ হয়ে গেলে অন্যরা ভয়ে থাকে। তাই আন্ডারডগ হয়ে খেলাটাই আমাদের জন্য ভালো, তাহলে কোনো চাপ থাকে না।’

সব শেষ ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫-০তে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। সরফরাজসহ দলের সেরা কজন বিশ্রামে ছিলেন সেই সিরিজে। খারাপ ফর্ম নিয়ে এ জন্য বেশি উদ্বিগ্ন নন পাকিস্তানি অধিনায়ক। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে উত্তেজনা ছড়ালেও শান্ত তিনি, ‘আমার কাছে ৯টি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটি অন্যগুলোর মতোই খেলব। চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ওদের হারিয়েছি তাই এগিয়ে থাকব আমরাই।’

বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে তৈরি হয়েছিল অনিশ্চয়তার মেঘ। দুই দেশের রাজনৈতিক তিক্ততা বেড়েছে আরো। এর পরও পাকিস্তানি ওপেনার আবিদ আলীর বিশ্বাস শচীন টেন্ডুলকারের দেখা পাবেন তিনি। ভারতীয় এই কিংবদন্তির ভক্ত আবিদ চাইবেন তাঁর পরামর্শও, ‘আমার জীবনের অন্যতম ইচ্ছে শচীন টেন্ডুলকারের সঙ্গে দেখা করার। দেখা হলে সেই দিনটা হবে জীবনের সেরা। জড়িয়ে ধরতে চাই তাঁকে। ক্রিকেট নিয়ে কোনো প্রশ্ন করলে আমি নিশ্চিত তিনি খালি হাতে ফেরাবেন না। জীবনের প্রথম দিন থেকে আমি টেন্ডুলকারের টেকনিক দেখে ব্যাট করে এসেছি। চেষ্টা করেছি তাঁর স্টাইল অনুসরণ করার।’

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আরব আমিরাতে ওয়ানডে অভিষেক হয় আবিদ আলীর। সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে খেলতে নেমে করেন ১১২ রান। পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অভিষেকে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড এটাই। প্রথম ম্যাচে সেঞ্চুরি করে ৩১ বছর বয়সী এই ওপেনার শান মাসুদের জায়গায় ডাক পেয়েছেন বিশ্বকাপ দলে। টেন্ডুলকার ছাড়া নিজের অন্য প্রিয় ব্যাটসম্যানদের নামও জানালেন তিনি, ‘আমাদের দেশের ইনজামাম উল হক, মোহাম্মদ ইউনিসের ব্যাটিং ভীষণ পছন্দ করতাম। ভিভ রিচার্ডসের আগ্রাসী ব্যাটিংয়েরও ভক্ত আমি। রিচার্ডসের সঙ্গে দেখা হলেও ব্যাটিং নিয়ে কথা বলব।’ পিটিআই

মন্তব্য